১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

শিরোনাম
তেলবাহী লড়ি উল্টে গিয়ে আগুন লেগে এক জনের মৃত্যু। ভূমি বিষয়ক তথ্যাদি স্কুলের পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ করো হয়েছে-ভূমিমন্ত্রী মির্জা ফকরুলরা তারেক জিয়ার নির্দেশে জনগনের সাথে প্রতারনা ও তামশা করছে-আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিগ বার্ড ইন কেইজ: ২৫ শে মার্চ রাতে বঙ্গবন্ধুর গ্রেফতার  ঢাবি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে ১ কোটি টাকার বৃত্তি ফান্ড গঠিত হাইকোর্টের রায়ে ডিন পদে নিয়োগ পেলেন যবিপ্রবির ড. শিরিন জয় সেট সেন্টার’ থেকে মিলবে প্রশিক্ষণ, বাড়বে কর্মসংস্থান: পীরগঞ্জে স্পীকার বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস আগামীকাল টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী, সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন বিশিষ্ট রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী সাদি মোহম্মদ আর নেই

বিখ্যাত পরিচালক সিবি জামানের সিনেমায় বলিউডের নায়িকা পূজা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

ঢাকাই সিনেমায় অভিনয় করতে যাচ্ছেন বলিউডের জনপ্রিয় নায়িকা পূজা চোপড়া। বাংলাদেশের বিখ্যাত পরিচালক সিবি জামানের পরিচালনায় ‘অ্যাডভোকেট সুরাজ’ নামের একটি সিনেমায় অভিনয় করবেন তিনি।সম্প্রতি মুম্বাইয়ের একটি রেস্টুরেন্টে এই সিনেমাটিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন এই নায়িকা।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন সিনেমার প্রযোজক ও অভিনেতা শামস হাসান কাদির, মিডিয়া এক্টিভিস্ট আমিনুল ইসলাম শাওন, বলিউডের জনপ্রিয় নৃত্য পরিচালক মাস্টার সৌরভ।

সিনেমাটিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করবেন ‘হৃদয় রংধনু’খ্যাত অভিনেতা শামস হাসান কাদিরকে। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করবেন পূজা চোপড়া।

পূজা এক ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘সবার জন্য দারুণ একটা সংবাদ হচ্ছে, আমি বাংলাদেশের সিনেমায় অভিনয় করতে যাচ্ছি। এর নাম ‘অ্যাডভোকেট সুরাজ’। এটি পরিচালনা করছেন বরেণ্য নির্মাতা সি.বি. জামান। দেখা হচ্ছে শিগগিরই।’

বলিউডে ক্যারিয়ার গড়ার আগে ২০০৯ সালে ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া হন পূজা। ২০১১ সালে তামিল সিনেমা ‘পোন্নার শঙ্কর’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক তার। এরপর বলিউডে ‘ফ্যাশন’ ও ‘হিরোইন’ ও ২০১৩ সালে বিদ্যুতের বিপরীতে ‘কমান্ডো’ সিনেমায় নায়িকা হিসেবে কাজ করেন। এছাড়া গত বছর ‘আইয়ারি’ সিনেমাতে অভিনয় করেছেন তিনি।

নির্মাতা সিবি জামানের সর্বশেষ ছবি কুসুম কলি মুক্তি পেয়েছিলো ১৯৯০ সালে। ১৯৭৩ সাল থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত সরাসরি চলচ্চিত্র পরিচালনার সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন তিনি। এ সময়ে তিনি নির্মাণ করেন একে একে ঝড়ের পাখি (১৯৭৩), উজান ভাটি (১৯৮২), পুরস্কার (১৯৮৩), শুভরাত্রি (১৯৮৫), হাসি (১৯৮৬), লাল গোলাপ (১৯৮৯) ও কুসুম কলি’র (১৯৯০) মতো কালজয়ী চলচ্চিত্র। এরমধ্যে শুভরাত্রি ছবিটি ব্যবসায়িক সফলতার পাশাপাশি ১৯৮৬ সালে ৯টি ক্যাটাগরির ভেতরে ৬টি ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পায়।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network