১১ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

শিরোনাম
চরফ্যাশনে ২৮ হাজার পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা : নেই স্বাস্থ্যবিধি বালাই জলবায়ূ পরিবর্তনে সমুদ্র পৃষ্টের উচ্চতা বাড়লেও বাড়েনি চরফ্যাশনের বেড়ী বাধের উচ্চতা ঈদের আগেই শ্রমিকদের বেতন বোনাস পরিশোধ করে শ্রমিকদের সাথে সহনশীল আচরণ করুন – পীর সাহেব চরমোনাই কুয়াকাটার সৈকতে ভেসে এসেছে বিশাল এক মৃত ডলফিন গ্রাম পুলিশ হত্যাকান্ডের পর অসহায় পরিবারের পাশে নেই প্রশাসন পাল্টে যাচেছ চরফ্যাশনের গ্রামীণ জনপদ : সন্ধ্যা নামলেই সৌর বাতি সুগন্ধা নদীর ভাঙ্গন প্রতিরোধে চলমান প্রকল্প পরিদর্শন করলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বরিশালে দেড় হাজার কর্মহীনদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা সামগ্রী বিতরণ আমতলীর বারী মুগডাল-৬ জাপানে রপ্তানী বন্ধ

বিদেশে নিয়ে স্ত্রীকে বিক্রি করে দিল স্বামী

আপডেট: অক্টোবর ১২, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

উচ্চ বেতনের প্রলোভন দেখিয়ে নিজের স্ত্রীকে বিদেশে নিয়ে দালালদের কাছে বিক্রি করে কৌশলে পালিয়ে দেশে ফিরে আসার অভিযোগ উঠেছে প্রতারক স্বামী মঞ্জু মিয়ার বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী গৃহবধূ রাবেয়া বেগম দালালদের কাছ থেকে প্রাণে রক্ষা পেয়ে গত ৬ অক্টোবর দেশে ফিরে আসেন। দেশে ফিরে এসে নির্যাতিত গৃহবধূ রাবেয়া বেগম বাদী হয়ে গত বুধবার রাতে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে বন্দর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

জিডি সূত্রে জানা যায়, দুই বছর আগে বন্দর থানার নূরপুর এলাকার মৃত আবদুল মালেক মিয়ার ছেলে মঞ্জু মিয়ার সঙ্গে একই থানার পুরান বন্দর চৌধুরীবাড়ির কলাবাগ এলাকার মোহাম্মদ আলী মিয়ার মেয়ে রাবেয়া বেগমের ৫ লাখ টাকা কাবিন মূলে বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক মাস পর মঞ্জু মিয়া জীবিকার তাগিদে লেবাননে পাড়ি জমান। বিয়ের ছয় মাস পর স্বামী মঞ্জু মিয়া তার স্ত্রী রাবেয়াকে লেবাননে নিয়ে যান। গৃহবধূর বাবা মোহাম্মদ আলী জানান, ‘প্রতারক স্বামী মঞ্জু মিয়া আমার মেয়ে রাবেয়াকে দিয়ে সেদেশে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকতে বাধ্য করে। একপর্যায়ে গত বছরের ২১ মে ওই দেশের দালালদের কাছে আমার মেয়েকে বিক্রি করে দেশে ফিরে পুনরায় আরেকটি বিয়ে করে। পরে রাবেয়া দালালদের কবল থেকে মুক্তি পেয়ে গত ৬ অক্টোবর দেশে ফিরে স্বামীর বাড়িতে উঠে তার অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করলে মঞ্জু ও তার বোন আমেলা এবং দ্বিতীয় স্ত্রী রুনা তাকে বেদম মারধর করে প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে। বর্তমানে রাবেয়া চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।’ বন্দর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, জিডির সূত্র ধরে তদন্ত শুরু হয়েছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
 
Website Design and Developed By Engineer BD Network