১১ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

শিরোনাম
চরফ্যাশনে ২৮ হাজার পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা : নেই স্বাস্থ্যবিধি বালাই জলবায়ূ পরিবর্তনে সমুদ্র পৃষ্টের উচ্চতা বাড়লেও বাড়েনি চরফ্যাশনের বেড়ী বাধের উচ্চতা ঈদের আগেই শ্রমিকদের বেতন বোনাস পরিশোধ করে শ্রমিকদের সাথে সহনশীল আচরণ করুন – পীর সাহেব চরমোনাই কুয়াকাটার সৈকতে ভেসে এসেছে বিশাল এক মৃত ডলফিন গ্রাম পুলিশ হত্যাকান্ডের পর অসহায় পরিবারের পাশে নেই প্রশাসন পাল্টে যাচেছ চরফ্যাশনের গ্রামীণ জনপদ : সন্ধ্যা নামলেই সৌর বাতি সুগন্ধা নদীর ভাঙ্গন প্রতিরোধে চলমান প্রকল্প পরিদর্শন করলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বরিশালে দেড় হাজার কর্মহীনদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা সামগ্রী বিতরণ আমতলীর বারী মুগডাল-৬ জাপানে রপ্তানী বন্ধ

বরিশালে জেলেদের কাছ থেকে ঘুষ আদায় ॥ এএসআই প্রত্যাহার

আপডেট: অক্টোবর ১৯, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

শামীম আহমেদ ॥ উপজেলা প্রশাসন ও থানার ওসিকে না জানিয়ে নদী থেকে জেলেদের আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতে চালান দেয়ার ভয় দেখিয়ে দশ জন জেলের কাছ থেকে ৬৫ হাজার টাকা ঘুষ নেওয়ার ঘটনায় জেলার মেহেন্দিগঞ্জ থানার দুই পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। প্রত্যাহারকৃতরা হলেন মেহেন্দিগঞ্জ থানার এএসআই মোঃ দেলোয়ার ও পুলিশ কনস্টবল মোঃ সুমন।
শনিবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করে পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান, মৎস্য কর্মকর্তাকে সঙ্গে না নিয়ে ও ওসিকে না জানিয়ে এএসআই মোঃ দেলোয়ার ও কনস্টবল মোঃ সুমন অভিযান চালিয়ে কয়েকজন জেলেকে আটক করেন। এরপর তাদের ছেড়ে দেন। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশ ছাড়া তারা এ ধরনের অভিযান পরিচালনা করতে পারেন না। এ কারণে শনিবার সকালে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে থানা থেকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তিনি আরও জানান, উৎকোচ নিয়ে জেলেদের ছেড়ে দেয়া হয়েছিল কিনা তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। তদন্তে উৎকোচ প্রহণের বিষয়টি প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ্য শুক্রবার ভোরে মেহেন্দিগঞ্জ থানার এএসআই দেলোয়ারের নেতৃত্বে উপজেলার চরএকরিয়ার লালখারাবাদ নদীতে মাছ ধরার অভিযোগে জাল ও ইলিশ মাছসহ দশ জন জেলেকে আটক করে। পরে আটককৃতদের ৬৫ হাজার টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দিয়ে জাল এবং মাছ নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠে এএসআই দেলোয়ারের বিরুদ্ধে। বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পরলে এএসআই দেলোয়ারসহ ঘটনায় জড়িত অন্যান্য পুলিশ সদস্যদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বিষয়টি পুলিশ কর্মকর্তাদের নজরে আসলে দুই পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়। তবে প্রত্যাহারকৃত দুই পুলিশ সদস্য ঘটনার সাথে জড়িত নয় বলে জানিয়েছেন। এঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত হলে তারা নির্দোষ প্রমাণিত হবেন বলেও জানান।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
 
Website Design and Developed By Engineer BD Network