২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

বরিশালে শ্রীলংকা-বাংলাদেশ টিম

আপডেট: অক্টোবর ২৩, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

আজ (২৩ অক্টোবর) বুধবার বরিশালে আসছেন শ্রীলংকা ও বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। সকালে বাংলাদেশ টিম এবং বিকেলে শ্রীলংকা টিম সড়ক পথে বরিশালে পৌছাবেন। পরবর্তী ২৬ অক্টোবর বরিশাল শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়ামে টেস্টম্যাচে মুখোমুখি হবেন তারা। এর আগে দু’দিন মাঠে অনুশিলন করবেন দুই দেশের খেলোয়াড়রা।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এর পরিচালক এবং বরিশাল বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সদস্য সচিম মো. আলমগীর খান আলো এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে প্রথমবারের মত শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক পর্যায়ের চার দিনের টেস্ট ম্যাচকে ঘিরে চলছে শেষ সময়ের প্রস্তুতি। খেলার জন্য এরই মধ্যে উপযোগী করে তোলা হয়েছে মাঠের বহিরাঙ্গন। প্যাভিলিয়ন ও খেলোয়াড়দের ড্রেসিং রুমের সাজসজ্জা শেষে চলছে ফিনিসিংয়ের কাজ। আর এ কাজের তদারকি করছেন বিসিবি’র প্রকৌশলীসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।

বিসিবি’র পরিচালক আলমগীর খান আলো জানান, ‘সম্প্রতি এশিয়া কাপে ভারতের সঙ্গে ফাইনালে খেলে রানার্সআপ হয় অনূর্ধ্ব-১৯ দল। বাংলাদেশের সেই জুনিয়র টাইগাররাই আন্তর্জাতিক টেস্টম্যাচ খেলবেন শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল স্টেডিয়ামে। তাও আবার শক্তিশালী শ্রীলংকা’র অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সঙ্গে।

বিসিবি’র ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘দল দুটি বর্তমানে খুলনায় রয়েছে। আজ ২৩ অক্টোবর তারা বরিশালে পৌছাবে। এর মধ্যে সকালে বাংলাদেশ টিম বরিশালে এসে সদর রোডের হোটেল স্যাডোনা এবং বিকেলে বরিশালে পৌছবে শ্রীলংকা টিম। তারা বান্দ রোডের হোটেল গ্রান্ড পার্কে অবস্থান নিবেন। প্রতিটি টিমে নূন্যতম ১৮ জন করে খেলোয়াড় থাকবেন।

তিনি বলেন, ‘আজ বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার অনূর্ধ্ব-১৯ টিম বরিশালে আসলেও খেলা হবে ২৬ অক্টোবর সকাল থেকে। যা চলবে আগামী ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত। এর আগে দু’দিন তারা স্টেডিয়ামে অনুশিলন করবে। তাছাড়া দেশী এবং বিদেশী খেলোয়াড়দের নিরাপত্তার বিষয়টি তদারকি করছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ। খেলা শুরুর আগে মাঠের প্রস্তুতির সময় থেকেই স্টেডিয়ামে নিরাপত্তায় নিয়জিত রয়েছে পুলিশের টিম। তাছাড়া খেলার বিষয়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও ব্রিফিং হবে।

তার আগেই খেলোয়াড়দের সুবিধার জন্য স্টেডিয়ামে বিসিবি’র উদ্যোগে ১০টি এসি বসানো হয়েছে। কার্পেটিং করে সাজানো হয়েছে খেলোয়াড়দের ড্রেসিং রুম। ডাইনিংয়েও দেয়া হয়েছে উন্নতমানের ৬০টি চেয়ার। খেলোয়াড়রা যাতে আন্তর্জাতিক মানের সকল সুযোগ সুবিধা পায় সেভাবে ব্যবস্থা করা হয়েছে।

জানাগেছে, বিগত পাকিস্তান আমলে বর্তমান নগরীর বান্দ রোডস্থ চাঁদমারী এলাকায় স্থাপন হয় বরিশাল স্টেডিয়াম। পরবর্তীতে ২০০০ সালের দিকে আধুনিকায়নের ছোয়া লাগে স্টেডিয়ামটিতে। পূর্বের গ্যালারী ভেঙে প্রায় অর্ধ লাখ দর্শক ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন সুবিশাল গ্যালারী, দুটি প্যাভিলিয়ন এবং স্টেডিয়ামটিতে ডে-নাইট ম্যাচ খেলার জন্য স্থাপন করা হয় চারটি ফ্লাট লাইট।

এছাড়াও বিভিন্ন উন্নয়নের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মানের স্টেডিয়ামে রূপান্তরিত করা হয় শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়ামকে। তবে মাঝে মধ্যে জাতীয় লীগের দু-একটি খেলা হলেও অনেক কাঠ-কড় পুড়িয়ে আন্দোলনের পরেও আধুনিক ও আন্তর্জাতিক মানের সুবিশাল এই স্টেডিয়ামে আদৌ গড়ায়নি আন্তর্জাতিক মানের কোন ম্যাচ।

এমনকি স্থাপনের পর থেকে এ পর্যন্ত এক বারের জন্যও জ¦লেনি ফ্লাট লাইট গুলো। ফলে বিকল হয়ে পড়ে আছে বহু মুল্যমানের ওই ফ্লাট লাইট। দীর্ঘ বছরে হলেও শ্রীলংকা-বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের মধ্যকার টেস্ট ম্যাচকে ঘিরে সেই স্বপ্ন পুরন হতে চলেছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network