২০শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

বরিশাল শেবাচিম হাপসাতালের আউটডোর ডক্টর’স অ্যাসোসিয়েশনের মহৎ কর্মসূচী

আপডেট: অক্টোবর ২৮, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

রোগী ও স্বজনদের কস্ট লাগবে এগিয়ে এলো শেবাচিম হাপসাতালের আউটডোর ডক্টর’স অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনটি বিভিন্ন সেবা মূলক কাজে লিপ্ত হওয়ায় ইতো মধ্যে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করছে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগী ও স্বজনদের বসার জন্য সংগঠনের ব্যক্তিগত উদ্যোগে লÿাধিক টাকা ব্যায়ে বেঞ্চ তৈরি করে দিয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বহিঃবিভাগে আগত রোগী ও স্বজনদের সংখ্যা বেড়েছে। ফলে টিকেট কাউন্টার থেকে শুরু করে চিকিৎসকদের চেম্বারের সামনে লাইন দিয়ে অসংখ্য রোগী দাড়িয়ে থাকে। রোগী তুলনায় বসার স্থান অপ্রতুল থাকায় অসুস্থ্য রোগীদের দাড়িয়ে থাকতে হয়। এমনকি হাসপাতালের শিশু বহিঃবিভাগে মায়ের তাদের শিশু সন্তান কোলে নিয়ে দাড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। এতে করে বহিঃবিভাগে চলাচলেরও পথ আটকে যায়। এই পরিস্থিতিতে আউটডোর ডক্টর’স অ্যাসোসিয়েশন রোগীদের বসার জন্য সংগঠনের ব্যক্তিগত উদ্যোগে লÿাধিক টাকা ব্যায়ে ১৫টি বড় আকারের বেঞ্চ তৈরি করে দিয়েছে। এর ফলে রোগীরা বসতে পাড়ায় তাদের কষ্ট লাঘব হয়েছে। আউটডোর ডক্টর’স অ্যাসোসিয়েশন মহত্ত¡ ও উদ্যোগকে রোগী ও স্বজনরা সাধুবাদ জানিয়েছেন। গতকাল পাথরঘাটা থেকে গাইনী বহিঃবিভাগে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী আমেনা বেগম জানান, গত এক মাস পূর্বে আমি এখানে এসেছিলাম। তখন বসার জন্য কোন স্থান পাইনি। আমার খুবই কষ্ট হয়েছে। কিন্তু এখন এসে দেখলাম বসার জন্য নতুন বেঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। যারা এই বেঞ্চ গুলো তৈরি করেছেন তাদের প্রতি কৃজ্ঞতা প্রকাশ করিছি। এমনই মন্তব্য করেন অসুস্থ্য শিশুপূত্রকে নিয়ে কাশিপুর থেকে আগত আবদুল জব্বার মিয়া, মরিয়ম বেগম, আবদুল কাদেরসহ অনেকে। চলতি বছরের এপ্রিল মাসে ডাঃ সৌরভ সুতারকে সভাপতি ও ডাঃ নুরুন্নবী তুহিনকে সাধারণ সম্পাদক করে, গঠিত ১৫ সদস্যের নতুন কমিটি দায়িত্ব গ্রহনের পরপরই সংগঠনটির সেবা মূলক কার্যক্রমের পরিধি বেড়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল পরিচালক ডাঃ মোঃ বাকির হোসেন। তিনি আউটডোর ডক্টর’স অ্যাসোসিয়েশন’র এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network