১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

 

মাত্র দুদিনে বরিশালে টিসিবি এর পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ

আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মাত্র দুদিন বরিশাল নগরীতে বিক্রি হয়েছিল ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) এর পেঁয়াজ। তাতেই নগরীর নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষের মধ্যে বেশ স্বস্তি ফিরে এসেছিল। কিন্তু টিসিবির সরবরাহকৃত পেঁয়াজ দুদিনেই ফুরিয়ে গেছে। এ যেন শুরুর আগেই ফুরিয়ে যাবার মতো। তাতেই সাধারণ ক্রেতাদের মধ্যে দেখা গেছে ক্ষোভ আর অসন্তোষ।

তবে প্রথম চালান ফুরিয়ে গেলেও চলছে দ্বিতীয় চালান আমদানির প্রস্তুতি। আগামী সপ্তাহের মধ্যে বরিশাল টিসিবিতে দ্বিতীয় চালান পেঁয়াজ এসে পড়বে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা। পাশাপাশি দ্বিতীয় চলানে পূর্বের থেকে বরাদ্দও বেশি থাকবে বলে আশাবাদী তারা। আর এমনটি হলে নগরবাসীর মধ্যে পেঁয়াজ নিয়ে যে যন্ত্রণা চলছে তার অনেকটাই নিরশন হবে।

জানা গেছে, গত সপ্তাহের বুধ ও বৃহস্পতিবার নগরীর ৫টি পয়েন্টে ট্রাক সেলের মাধ্যমে প্রতি কেজি ৪৫ টাকা মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করে টিসিবি। দীর্ঘ দিন পরে কম দামে পেঁয়াজ পেয়ে অনেকটা হুমরি খেয়ে পড়ে নগরীর নিম্ন ও মধ্যবিত্ত আয়ের মানুষ। এক কেজি পেঁয়াজের জন্য দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে ঘণ্টা পর ঘণ্টা অপেক্ষা করেন তারা।

কিন্তু শুরু হবার আগেই যেন শেষ হয়ে যায় ৪৫ টাকা মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রির এই কার্যক্রম। দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে এ পণ্যটির দাম বৃদ্ধির কারণে প্রয়োজনীয়তার দিকে থেকে যে চাহিদা তৈরি হয়েছে তা যেন কোনভাবেই পূরণ হয়নি ওই দুদিনে। তাই সাধারণ মানুষ কার্যক্রম বন্ধ হওয়ার পরেও অন্ধের মতো খুঁজে বেড়াচ্ছেন পেঁয়াজ নামক পণ্যটি।

হন্যে হয়ে টিসিবির পেঁয়াজ খুঁজে বেড়ানো নগরীর মুন্সী গ্যারেজ এলাকার বাসিন্দা আবদুর রব বলেন, ‘শুনেছি টিসিবি ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি করছে। কিন্তু যেসব স্থানে পেঁয়াজ বিক্রির কথা শুনেছি তার কোথাও গিয়ে পেঁয়াজের সন্ধান পাইনি। পরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে জানতে পারি টিসিবি’র পেঁয়াজ নাকি শেষ হয়ে গেছে।

বরিশাল জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনের ফটোকপি ব্যবসায়ী শামীম বলেন, ‘প্রতিনিয়ত লোকজন এসে জানতে চাইছে টিসিবির পেঁয়াজের ট্রাক কোথায়। যখন শুনছে পেঁয়াজ শেষ, তাই বিক্রি বন্ধ, তখন হতাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন তারা। বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষই বেশি হতাশ হচ্ছেন।

বরিশাল নগরীর খোলা বাজারে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, ‘টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির প্রভাবে বরিশালের পাইকারি ও খোলা বাজারে পেঁয়াজের মূল্য কমে যায়। ১৫০ থেকে ১৬০টা পর্যন্ত হয়েছিল পেঁয়াজের মূল্য। সোমবার হঠাৎ করেই সেই দাম বেড়ে ২৫০ থেকে ২৭০টায় গিয়ে পৌঁছায়। কোন কোন খুচরা বাজারের এর মূল্য ২৮০ টাকা পর্যন্ত রাখা হচ্ছে।

টিসিবির বরিশাল আঞ্চলিক কার্যালয়ের দায়িত্বে থাকা সহকারী কার্যনির্বাহী শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ওই সময়ে আমরা ১০ টন পেঁয়াজ পেয়েছিলাম। যা ৫টি ট্রাকে ৫ টন করে দু’দিন বিক্রি করা হয়েছে। এখন নেই তাই বিক্রি বন্ধ। তবে আগামী সপ্তাহের শুরুর দিকে পেঁয়াজের দ্বিতীয় চালান আসার কথা রয়েছে। এলে ওই একই মূল্যে তা বিক্রি শুরু করা হবে। প্রথম চালানে আমরা কম পেঁয়াজ পেয়েছি। আশা করছি এবার সরবরাহ গত চালানের থেকে বেশি হবে। সেক্ষেত্রে বিক্রিও করা যাবে বেশি দিন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
 
Website Design and Developed By Engineer BD Network