৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

পুলিশ কর্মকর্তার ছেলেকে পেটাল ছাত্রীরা

আপডেট: নভেম্বর ৩০, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সহপাঠীকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করার পর শ্লীলতাহানির অভিযোগে এক কলেজছাত্রকে প্রকাশ্যে পেটাল ছাত্রীরা। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহীর নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের অডিটোরিয়ামের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ইতিমধ্যে ওই ছাত্রকে মারধরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছিড়য়ে পড়েছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, ক্যাম্পাসে কলেজ ইউনিফর্ম পরা এক ছাত্রকে প্রথমে এক তরুণী বলেন, একটা মেয়েকে অপমান করেছিস, তুই বুঝিস কি করেছিস? বলেই তিনি ওই ছাত্রকে চড়-থাপ্পর দেন ও গালমন্দ বলেন। এরপর তিনি ওই ছাত্রকে মারতে উপস্থিত ছাত্রীদেরও বলেন। এ সময়ে ভিডিওতে ওই ছাত্রকে মারতে পুরুষ কণ্ঠের আওয়াজ আসে। এসব শোনার পর কয়েকজন ছাত্রী ওই ছাত্রকে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে এক ছাত্র গিয়ে ছাত্রীদের থামান।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দ্বাদশ শ্রেণীর মানবিক বিভাগের টেস্ট পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষার হল থেকে বের হওয়ার পর মানবিক বিভাগের ছাত্র যোবায়ের তার এক সহপাঠী ছাত্রীকে অশালীন প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাবে রাজি না হলে ওই ছাত্র তার সহপাঠীর ছাত্রীর শরীরে স্পর্শ করার চেষ্টা করে।

এ সময় ওই ছাত্রী সেখান থেকে সরে গিয়ে পাশে থাকা তার সহপাঠী ছাত্রীদেরকে জানান। পরে তারা এসে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করেন। একপর্যায়ে তিনজন ছাত্রী মিলে উত্ত্যক্তকারী ওই ছাত্রকে মারধর করেন।

অভিযোগকারী ছাত্রীর সহপাঠীরা জানিয়েছেন, বেশ কিছুদিন ধরেই ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল যোবায়ের। কিন্তু তাতে সাড়া না দেয়ায় প্রথম দিকে তাকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করা শুরু করে যোবায়ের। কেন প্রেম করবে না সে কারণ জানতে চায় ও নানা হুমকি দিতে থাকে। তাতেও কাজ হচ্ছে না দেখে ওই ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করে যোবায়ের। বিষয়টি পরে কাঁদতে কাঁদতে সহপাঠীদের জানান ওই ছাত্রী।

সেই অভিযোগের জের বৃহস্পতিবার বিভাগের টেস্ট পরীক্ষা থেকে বেরিয়ে আসলে অভিযুক্ত যোবায়েরের ওপর চড়াও হন ছাত্রীরা। এক পর্যায়ে কয়েকজন ছাত্রী তাকে মারধর করতে থাকলে এ ঘটনার ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে পোস্ট করে একই বিভাগের এক শিক্ষার্থী। আর তা রাতারাতি ভাইরাল হয়ে যায়। ভিডিওটি চোখে পড়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষেরও। তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন বলে জানিয়েছেন।

ঘটনার বিষয়ে নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ এসএম জার্জিস কাদের বলেন, ভিডিওটি নজরে আসার পরপরই আমি শিক্ষার্থীদের ডেকে নিয়ে কথা বলেছি। ওই ছাত্র তার এক সহপাঠীকে উত্ত্যক্ত করেছে বলে তারা অভিযোগ করেছে। আগামী রোববার অভিভাবকসহ ওই ছাত্রী ও ছাত্রকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগের সত্যতা পেলে আইনত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে এভাবে ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া উচিত হয়নি বলে জানান তিনি।

এদিকে শ্লীলতাহানির শিকার ওই ছাত্রীর অভিযোগ, মারধরের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তাকে আবারও হুমকি দিয়েছে যোবায়ের। দ্রুত এর সমাধান না হওয়া পর্যন্ত নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে সে। তাই এ নিয়ে আইনত ব্যবস্থা নেয়ার কথাও ভাবছে সে।অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে এ নিয়ে মন্তব্য করতে চাননি অভিযুক্ত যোবায়ের হোসেন।

ভিডিওতে দেখুন –

আরও পড়ুন
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network