১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

নগর আ.লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে বরিশালে সাজ সাজ রব

আপডেট: ডিসেম্বর ৭, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন কাল রোববার। নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনকে ঘিরে বঙ্গববন্ধু উদ্যানসহ পুরো নগরীকে সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। নগরীর নেতাকর্মীদের মাঝেও প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে। আয়োজকরা জানান, জমকালো আয়োজনে সম্মেলন সফল করা হচ্ছে। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় একডজন হেভিওয়েট নেতা সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন। সম্মেলনের মাধ্যমে নগর আওয়ামী লীগের পরবর্তী কমিটি নিয়ে বরিশালে চলছে নানা আলোচনা।
বঙ্গবন্ধু উদ্যানে সম্মেলনের মঞ্চ ও বিশাল প্যান্ডেল তৈরির কাজ শুরু হয়েছে আরও একসপ্তাহ আগে। বরিশাল বিমানবন্দর থেকে সম্মেলন মাঠ পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়কে অর্ধশতাধিক তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। সড়কপথ সাজানো হয়েছে প্লাকার্ড, ফেস্টুন দিয়ে। রোববার সকাল ১১টায় সম্মেলন উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু এমপি। প্রধান অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়েদুল কাদের এমপি। বিশেষ বক্তা থাকবেন পার্বত্য শান্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী) আলহাজ আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আবদুর রহমান এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম সম্মেলনে বিশেষ এ প্রসঙ্গে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট এ.কে.এম জাহাঙ্গির বলেন, সম্মেলনের সকল প্রস্ততি সম্পন্ন। দুটি ধাপেÑ যথাক্রমে উদ্বোধনী পর্ব সকালে এবং কাউন্সিল বিকেলে অনুষ্ঠিত হবে। ২৫ হাজারের বেশি কাউন্সিলর, ডেলিগেট ও নেতাকর্মী সম্মেলনে অংশ নেবেন। সভাপতি-সম্পাদক পদে ভোটাভুটি হলে ৩৭১ জন কাউন্সিলর ভোট দেবেন। বিকল্প হিসাবে দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া কমিটি সকলে মেনে নেবেন।
নগর আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য কমিটিতে সাধারন সম্পাদক পদে প্রার্থী হিসাবে রয়েছেন সিটি মেয়র ও বর্তমান কমিটির যুগ্ন সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ। এ পদে প্রকাশ্যে কারো নাম শোনা না গেলেও আরও দুজনের প্রার্থীতার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। সভাপতি পদে অপ্রকাশ্যে আলোচনায় আছেন সদর আসনের সংসদ সদস্য ও পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অবঃ) জাহিদ ফারুকের নাম। তিনি বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি। আলোচনায় আছেন আরও চারজন। তারা হলেনÑ সদর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ, নগর কমিটির বর্তমান সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আফজালুল করীম, সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট একেএম জাহাঙ্গীর ও সভাপতি এ্যাড. গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল। এ পদ নিয়ে ভেতরে ভেতরে লবিং চললেও প্রকাশ্যে সকলে বলছেন, দলের সভানেত্রী যে সিদ্ধান্ত দেবেন, সেটাই তারা মেনে নেবেন।
প্রসঙ্গত, মহানগর আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর। ওই সম্মেলনের ৪ বছর পর ২০১৬ সালের ২০ অক্টোবর মহানগরের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠিত হয়। এ কমিটির মেয়াদ শেষ হয় গত ১৯ অক্টোবর।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network