১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

 

নুরদের ওপর হামলা: লাঠি হাতে কে এই ছাত্রলীগ নেত্রী?

আপডেট: জানুয়ারি ২, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) গেট বন্ধ করে ভিপি নুরুল হক নুরসহ অন্যদের ওপর ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের হামলার ঘটনায় আলোচনায় উঠে এসেছেন এক ছাত্রলীগ নেত্রী। তার নাম ফাতেমাতুজ জুহরা রিপা। তিনি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রীয় কমিটির ছাত্রীবিষয়ক সম্পাদক। এছাড়াও তিনি লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের ছাত্রীবিষয়ক সম্পাদক। লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌরসভার বাঁশঘর এলাকার বাসিন্দা ফাতেমাতুজ জুহরা রিপা রামগঞ্জ মডেল কলেজের অনার্সে পড়ছেন।

গত ২২ ডিসেম্বর ডাকসু কক্ষে ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের হামলার ঘটনার এক ভিডিওতে ফাতেমাতুজ জুহরা রিপাকে লাঠি হাতে দেখা যায়। এরপরই তার নাম নানামহলে এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচিত হতে থাকে। কে এই তরুণী সে প্রশ্ন ছুড়েন অনেকে। ইতিমধ্যে অনেককেই তার পরিচয় প্রকাশ করে ফেসবুকে ভাইরাল পুরোনো একটি ভিডিও পোস্ট করতে দেখা গেছে।

ওই ভিডিওতে দেখা গেছে ফেসবুক লাইভ এসে অঝড়ে কান্নাকাটি করছেন এই ছাত্রলীগ নেত্রী। সে সময় বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে প্রকাশ হয়, চলতি বছরের ৬ এপ্রিল রামগঞ্জ উপজেলা শিক্ষক সমিতির একটি অনুষ্ঠানে লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জ) আসনের আনোয়ার হোসেন খানের সঙ্গে সভামঞ্চে উঠলেও রিপাকে নামিয়ে দেয়া হয়। তাকে কেন নামিয়ে দেয়া হলো সেই ক্ষোভ প্রকাশ করতে ফেসবুক লাইভ এসে কান্নাকাটি করেন রিপা।

রোববার ভিপি নুরের ওপর হামলার ঘটনায় লাঠি হাতে সেই রিপাকেই দেখা গিয়েছে। এরই মধ্যে মঙ্গলবার রাতে ফাতেমাতুজ জুহরা রিপা লাঠি হাতে থাকা তরুণী তিনিই বলে স্বীকার করেন। কেন লাঠি তুলে নিয়েছিলেন সে ব্যাখ্যাও দিয়েছেন রিপা। কারও ওপর হামলা করতে নয়; শিবির-ছাত্রদল ঠেকাতে আর নিজের নিরাপত্তার তাগিদে লাঠি হাতে তুলে নিয়েছিলেন বলে জানান রিপা।

তিনি বলেন, ভিপি নুরের সঙ্গে থাকা বহিরাগত ছাত্রদল-শিবিরের নেতাকর্মীরা আমাদেরকে গালমন্দ করেছেন। এজন্য লাঠি হাতে তাদের ধাওয়া করেছিলাম। এ দিকে রিপার এই লাঠি হাতে নেয়ার দৃশ্য ভাইরাল হয়ে পড়লে তার নিজ শহর রামগঞ্জে তাকে নিয়ে নিন্দার ঝড় বইছে। যে কারণে নিজের ফেসবুক আইডি ডিঅ্যাকটিভ করে রাখেন নিপা।

তবে তার নামে (Fatema Ripa) একটি ফেসবুক পেইজ ও গ্রুপ খুলে মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে লাঠি হাতে ছবিগুলো দিয়ে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীদের হুঁশিয়ারি দেয়া হয়। ওই পোস্টগুলোতে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য করছেন। এতে অনেকেই রিপোর্ট দিয়ে আইডি, পেইজ ও গ্রুপগুলো বন্ধের অনুরোধ করেছেন।

এছাড়াও নুরদের ওপর হামলায় ঘটনায় রিমান্ডে থাকা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আল মামুন, ইয়াসির আরাফাত তূর্য ও মেহেদি হাসান শান্তকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

ফাতেমাতুজ জুহরা রিপার বিষয়ে রামগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুল হাসান ফয়সাল বলেন, রিপা স্থানীয় ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। সম্প্রতি ঢাকায় গিয়ে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কেন্দ্রীয় ছাত্রীবিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পেয়েছেন। লাঠি হাতে তার ছবিগুলো দেখেছি আমরা। এমন কাজ করা ঠিক হয়নি তার। এ নিয়ে এলাকায় তাকে নানা নেতিবাচক কথাবার্তা চলছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
 
Website Design and Developed By Engineer BD Network