১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

বোরখা পরে হিন্দু নারী !

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সারা ভারতে এখন সবচেয়ে বেশি চর্চিত জায়গার নাম দিল্লির শাহীন বাগ।

সম্প্রতি শাহীন বাগে গুলি চলায় আরও বেশি করে শোরগোল শুরু হয়েছে নারী ও শিশুদের সিএএ বিরোধী এই অবস্থান বিক্ষোভকে ঘিরে।

এরই মধ্যে বুধবারের একটি ঘটনায় নতুন করে চাঞ্চল্য ছড়াল ভারতের রাজধানীতে। 

প্রতিবাদ স্থলে মঞ্চে হঠাতই এসে পড়েন বোরখা পরিহিতা এক নারী।

তাঁর গতিবিধি সন্দেহজনক ঠেকায় তাঁকে ঘিরে ধরেন বাকি বিক্ষোভকারীরা।

পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে বুঝে পুলিশ ওই নারীকে ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে আনে।

জানা গিয়েছে ওই নারীর নাম গুঞ্জা কাপুর।

এরপরই বেরিয়ে আসে তাঁর পরিচয়।

গেরুয়া শিবিরের হয়ে সোশ্যাল মিডিয়া ও পত্রপত্রিকায় রীতিমতো লেখালেখি করেন তিনি।

নিজের একটি ইউটিউব চ্যানেলও আছে তাঁর।

সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, তাঁকে ট্যুইটারে ফলো করেন খোদ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপি সাংসদ তেজস্বী সূর্য।

এদিন শাহীন বাগে এসেই উপস্থিত নারীদের উদ্দেশে নানা প্রশ্ন করতে শুরু করেন গুঞ্জা।

কেন এই প্রতিবাদ, কে এই প্রতিবাদ করতে বলেছেন, এই জাতীয় নানা প্রশ্ন ধেয়ে আসতে থাকে নারীদের উদ্দেশে।

সন্দেহ হওয়ায় নারীরাই গুঞ্জাকে তল্লাশি করেন।

আর তখনই তাঁর থেকে ক্যামেরা উদ্ধার হয়।

একজন হিন্দু হয়েও কেন তিনি বোরখা পরে এসেছেন, তার কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি ওই নারী।

এমনকী ক্যামেরা দিয়েও তিনি কোন ভিডিয়ো তৈরি করতে চেয়েছিলেন, তারও কোন উত্তর দেননি তিনি।

পুলিশ এসে কোনওরকমে ওই নারীকে বাইরে বের করে নিয়ে আসে।

ওই নারীকে যখন বাইরে বের করে আনা হচ্ছে, তখন তাঁকে সাংবাদিকরাও প্রশ্ন ছুড়ে দেন।

কিন্তু তিনি শুধু বলেন, ‘সংবাদমাধ্যমের জন্য এটা সেরা মুহূর্ত না।’

যদিও শাহীন বাগের বিক্ষোভকারীদের দাবি, বিজেপির মদতেই ওই মহিলা বোরখা পরে এসে শাহীন বাগে উত্তেজনা ছড়ানোর ষড়যন্ত্র করেছিলেন।

যদিও পুলিশের তরফে এখনও এই বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন