১০ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

 

বেইলি ব্রীজ ভেঙ্গে পরায় তালতলীর সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
বরগুনার আমতলী ও তালতলী সড়কের আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর বেইলি ব্রীজ ভেঙ্গে পরায় তিন দিন ধরে তালতলীর সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ রয়েছে। এতে দু’উপজেলার দু’লÿাধীক মানুষ চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
জানাগেছে, আমতলী থেকে তালতলী উপজেলার সড়ক পথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম তালতলী সড়ক। ৪০ কিলোমিটার এই সড়কটির আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর উপর ১৯৮৫ সালে স্থানীয় প্রকৌশল বিভাগ বেইলি ব্রীজ নির্মাণ করে। এ ব্রীজ দিয়ে আমতলী ও তালতলী উপজেলার দু’লÿাধিক মানুষ যাতায়াত করে। দুই উপজেলার সেতুবন্ধন এই ব্রীজটি দিয়ে প্রতিদিন ঢাকা ও তালতলীগামী পরিবহন বাস ,তালতলী আইসোটেক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভাড়ী ট্রাক, প্রাইভেট কার, মাহেন্দ্র, ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা, মোটর সাইকেলসহ সহ¯্রাধীক গাড়ী পারাপার হয়। গাড়ী চলাচল করায় দিন দিন ব্রীজটি নড়বড়ে হয়ে গেছে। ব্রীজের পাটাতন আলগা হয়ে সরে গেছে। ব্রীজে ছোট গাড়ী ওঠলেও ঠকঠক শব্দ করে নড়ে। ব্রীজের মাঝখানের পাটাতন দেবে গেছে। দীর্ঘদিন ব্রীজটি সংঙ্কার না করায় মারাত্মক দূর্ঘটনার আশঙ্কা করেছে এলাকাবাসী। ব্রীজ দেবে যাওয়ায় গত তিন দিন ধরে ওই ব্রীজ দিয়ে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে চরম দূর্ভোগে পরেছে দুই উপজেলার অন্তত দুই লÿ মানুষ। সোমবার ওই ব্রীজের মেরামতের কাজ শুরু করেছে স্থানীয় প্রকৌশলী বিভাগ।
স্থানীয় বাকি বিলøাহ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ব্রীজটি সংস্কার না করায় যান চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পরেছে। গত তিন দিন ধরে ওই ব্রীজ দিয়ে কোন যান বাহন চলাচল করছে না।
আড়পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মোঃ আবু জাফর বিশ্বাস বলেন, গত তিন দিন ধরে ব্রীজ দিয়ে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। সোমবার স্থানীয় প্রকেীশলী বিভাগ বেইলি ব্রীজের মেরামতের কাজ শুরু করেছে।
আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আব্দুলøাহ আল মামুনের সাথে মুঠোফোনে (০১৭৫৬৫৮৫২৯৬) যোগাযোগ করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
 
Website Design and Developed By Engineer BD Network