৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

রোমে জমকালো বসন্ত বরন সন্ধ্যায় কনিউনিটি নেতৃবৃন্দের মিলনমেলা

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

ইতালি প্রতিনিধিঃ
প্রতি বছর ঋতুরাজ বসন্তের আগমনে কমিউনিটির বিভিন্ন সংগঠন বসন্ত বরন অনুষ্ঠান আয়োজন করে থাকে।

ইতালির রোমে বৃহত্তর ঢাকার কৃতি সন্তান,বৃহত্তর ঢাকা সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক,কমিউনিটির পরিচিত মুখ,বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ্ আমিনুর রহমান সালাম এর আয়োজনে জমকালো বসন্ত সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়।

রোমের সুন্দরবন রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত হলো আনন্দ ও হাসি-উল্লাসে ঢাকাবাসীর বসন্ত সন্ধ্যা, মিলন মেলা ও নৈশভোজ।

অনুষ্ঠানে রোমের সর্বস্তরের রাজনৈতিক,সামাজিক ,নারী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহন করে।

বসন্ত উৎসবে বসন্ত বরন অনুষ্ঠানের সৃতি নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহত্তর ঢাকা সমিতির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শোয়েব দেওয়ানের সভাপতিত্বে এবং মাহামুদুল হাসান ও জুয়েল আহমেদ এর যৌথ পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সমিতির সাবেক সভাপতি নুরে আলম সিদ্দিকী বাচ্চু,ইতালি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবাল,ইতালি বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক খন্দকার নাসির উদ্দিন,সমাজ সেবক নুরুল আফসার,বৃহত্তর ঢাকা যুব পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাহি আলম শ্যামল,বাংকার সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গির আলম,সহ আরো অনেকে।এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রবীন সাংবাদিক ,ইতালি আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হাবীব চৌধুরী,বাংলাদেশ সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম সায়মন,মহিলা সমাজ কল্যান সমিতির সভাপতি লায়লা শাহ,বৃহত্তর ঢাকা সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জোবায়ের আহমেদ রিপন,সাধারন সম্পাদক মঞ্জুর আহমেদ,সহ আরো অনেকে।

ঢাকা বাসীর পাশাপাশি আমন্ত্রিত অতিথিরা মেতে উঠেছিলে বসন্ত উৎসবে।

আনন্দ-উল্লাস ও আলোচনা সভা সবমিলিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশ।

এ সময় বক্তারা বলেন প্রবাসে বাংলাদেশীদের সম্মান অক্ষুন্ন রাখতে দল-মত নির্বিশেষে আমাদের সকল ব্যক্তি স্বার্থ ভুলে গিয়ে সম্মানের কথা চিন্তা করে ইতালিতে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে চলতে হবে।

যাতে করে প্রবাসেও সামাজিক রাজনৈতিক,সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিক সকল ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ অবস্থানে থাকতে পারে।

আয়োজক আমিনুর রহমান সালাম বসন্ত সন্ধ্যা ও মিলনমেলার বক্তব্যে বলেন, আমাদেরও চাওয়া, মানব-মানবীর প্রেমের সম্পর্ককে মহিমান্বিত করতে একটি বিশেষ দিনের প্রয়োজন যদি হয়, তবে তা পশ্চিমা সংস্কৃতি থেকে ধার করা ভ্যালেন্টাইনস ডে নয়, সেটা হোক আমাদের বাঙালি জাতির একান্ত আপনার পহেলা ফাল্গুনই।

তিনি আরো বলেন আমার আজকের আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বৃহত্তর ঢাকা বাসীকে সকল ভেদাভেদ কে পিছনে ফেলে ঢাকা’র স্বার্থে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করা প্রত্যয়ে এগিয়ে যেতে চাই। সেটা হতে পারে সামাজি, অঞ্চলিক বা রাজনৈতিক সকল ক্ষেত্রে ঢাকার অধিকার প্রতিষ্ঠা বদ্ধপরিকর হওয়া।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network