১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

 

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়েতে শিক্ষার্থী নির্যাতন : ২ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (ববি) শিক্ষার্থী নির্যাতন ও হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত ২ শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

একই সঙ্গে হামলা-নির্যাতনের ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. সুব্রত কুমার দাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাময়িক বহিষ্কৃতরা হলেন- ভূ-তত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের আল সামাদ শান্ত এবং বাংলা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের তাহমিদ জামান নাভিদ।

বৃহস্পতিবার রাতে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে ৫ কর্মদিবসের মধ্যে তাদের রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

এই তদন্ত কমিটির প্রধান হলেন পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. খোরশেদ আলম এবং দুই সদস্য শের-ই বাংলা হলের আবাসিক শিক্ষক সাদমান শাকিব বিন রহমান ও সহকারী প্রক্টর সুপ্রভাত হালদার।

এর আগে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় শের-ই বাংলা হলের পক্ষ থেকে একটি পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

৩ সদস্যের ওই কমিটির ৫ কর্মদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দেওয়ার কথা।

শের-ই বাংলা হল কর্তৃপক্ষের গঠিত ওই কমিটির আহ্বায়ক হলেন শের-ই বাংলা হলের আবাসিক শিক্ষক ইয়াসিফ আহমদ ফয়সাল এবং দুই সদস্য একই হলের আবাসিক শিক্ষক সদস্য মো. সোহেল রানা ও আবাসিক শিক্ষক মো. সাইফুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাত ১০টার দিকে শের-ই বাংলা হলের ৪০১৬ নম্বর কক্ষের আবাসিক ছাত্র শাহজালালকে তার কক্ষ থেকে ডেকে একই হলের ১০০১ নম্বর কক্ষে নেওয়া হয়।

সেখানে তাকে হাত-পা ও মুখ বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ করেন শাহজালাল।

এ ঘটনায় ২৬ ফেব্রুয়ারি প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন তিনি।

একই দিন বিকালে ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীষ দ্বন্দ্বের জের ধরে ৪ শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে আহত করা হয়। তাদের শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই পৃথক দুই ঘটনার প্রতিবাদে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচার দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ২৬ ফেব্রুয়ারি ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করে।

এর ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জরুরি বৈঠক করে দুই শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার এবং ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন করে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
 
Website Design and Developed By Engineer BD Network