১২ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

জাতি নিয়ে কেউকে বরাবারী করতে দেয়া হবে না -বরিশাল পুলিশ সুপার

আপডেট: মার্চ ২, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার

  • জি.এম রিপন,বানারীপাড়া থেকে

বরিশালের কোন ব্যাক্তিকে জাতি নিয়ে বারাবারী করতে দেয়া হবে না বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেছেন পুলিশ সুপার মো.সাইফুল ইসলাম বিপিএম (বার)।

সোমবার দুপুরে বানারীপাড়া সদর ইউনিয়ন পরিষদ চত্তরে মাদক সন্ত্রাস ইভটিজিং বাল্য বিবাহ ও নারী নির্যাতন বিরোধী ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার এই ¯েøাগানকে সামনে রেখে থানা পুলিশ আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার মো.সাইফুল ইসলাম বিপিএম (বার) বলেন, সকল ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে আমাদের পরিচয় একটাই, আমরা সবাই ভাঙ্গালী।

এÿেত্রে যদি কোন ব্যাক্তি কোন জাতিকে নিয়ে বারাবারী করতে চেষ্টা করেন তার সে চেষ্টা কোন প্রকার মেনে নেয়া হবে না। পুলিশ সুপার বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। এ বিষয়টি আমাদের প্রত্যেকের হ্নিদয়ে লালন করতে হবে।

এÿেত্রে তিনি কারও প্রতি হিংসা দেমাগ দেখানো যাবে না বলেও উলেøখ করেণ। পুলিশ সুপার বলেন, আমরা যে যার ধর্ম পালন করব। এÿেত্রে আমাদের কারও প্রতি কোন ধরণের প্রতিহিংসা কিংবা বিদ্দেশমূলক আচরণ করা উচিৎ নয়।

তিনি বলেন, আমরা সহ-অবস্থানে বিশ^াস করি বলেই এ দেশের হিন্দু-মুসলিম ভাই ভাই, আমাদের মধ্যে কোন বিভেদ নাই।

পুলিশ সুপার বলেন, এলাকার মাদক ও সন্ত্রাস র্নিমূলের পাশাপাশি স্কুল-কলেজগামী শিÿার্থীদের ইভটিজিং, বাল্য বিবাহ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে অভিভাবকদের সচেতন হতে হবে। তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, অপনার সন্তান ঠিকমত স্কুল-কলেজে যায় কি? না।

সে স্কুল-কলেজে গিয়ে নিয়মিত ক্লাস না করে বাইরের কোথাও অন্যের সাথে আড্ডা দিয়ে মাদক সেবন করে কি?না। সন্ধ্যা হলেই সে পড়ার টেবিলে বসে বই পড়ছে কি? না।

সে রাতের খাবার খেয়ে না ঘুমিয়ে সারারাত মোবাইল ফোন নিয়ে জেগে থেকে সময় কাটায় কি?না। আপনার সন্তানের প্রতি এসব বিষয় নিয়ে সার্বÿনিক খোঁজ-খবর রাখার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন তিনি।

পুলিশ সুপার বলেন, এলাকার কোন যুবক মাদক’র সাথে জড়িত থাকলে আজ থেকে সে হয় ভাল হয়ে যান। অন্যথায় পুলিশ আপনাকে মাদকসহ ধরতে পারলে আইন অনুযায়ী আদালতে সোফর্দ করবেন।

এÿেত্রে তিনি বিপধগামী সন্তানদের অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনার সন্তানকে এখনও আলোর পথে আনার সময় আছে। আপনার মাদকাশক্ত ছেলেকে থানা পুলিশের মাধ্যমে মাদক নিরাময় কেন্দ্রে রেখে চিকিৎসা করে সম্পূর্ন সুস্থ্যরুপে ভাল পথে ফিরিয়ে আনতে পারেন।

এÿেত্রে পুলিশ আইনের মধ্যে থেকে আপনাকে সহযোগীতা করবেন। পুলিশ সুপার বলেন, স্কুল কিংবা কলেজগামী শিÿার্থীদের যদি কেউ ইভটিজিং করে থাকে, সে যেই হোক, তাকে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।

অবশ্যই তাকে আইনের আওতায় আনা হবে বলেও তিনি হুশিয়ারী উচ্চারণ করেণ।

এর আগে পুলিশ সুপার বানারীপাড়া ডিগ্রী কলেজ ও বালিকা বিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট কমিউনিটি পুলিশ ও পরে রায়েরহাট বিট পুলিশের সাথে মতবিনিময় সভা করেন। এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন, বাখারগঞ্জ সার্কেল’র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.আনোয়ার সাইদ।

সদর ইউনিয়ন কমিউনিটি পুলিশিং’র সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল ঘরামীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এছাড়াও অন্যান্যোর মধ্যে বক্তৃতা করেন, থানার অফিসার ইনচার্জ শিশির কুমার পাল, ইউপি সদস্য আব্দুলøাহ আল মামুন, আইয়োবালী মুহুরী, শিÿক শফিকুল আলম জুয়েল প্রমূখ। ##

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network