২০শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

করোনা সন্দেহে হোম কোয়ারেন্টাইনে বাকেরগঞ্জের ১ ব্যক্তি

আপডেট: মার্চ ১২, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক 

‘করোনা ভাইরাসের জীবাণু থাকতে পারে’ এমন আশঙ্কায় বরিশাল জেলার ৭ ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

এর মধ্যে গৌরনদী উপজেলায় ৪ জন, হিজলা উপজেলায় ২ জন ও বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ১ ব্যক্তি রয়েছে।

দেশে করোনাভাইরাসে তিনজন শনাক্ত হয়েছেন রোববার (০৮ মার্চ) সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এমন ঘোষণা দেয়।

এর পরে থেকে বরিশাল বিভাগের ৩ জেলার ১৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়।

তবে এদের মধ্যে এখন পর্যন্ত কারও শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি।

জেলা ও উপজেলা স্বাস্থ্যকর্মীরা হোম কোয়ারেন্টাইনের প্রধান পর্যবেক্ষক হিসেবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির পক্ষ থেকে সার্বক্ষণিক তাদের স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নেয়া হয়।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা: বাসুদেব কুমার দাস বলেন, বিভাগের ৩ জেলায় ১৫জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

জেলাগুলো হচ্ছে বরিশাল, ঝালকাঠি ও পটুয়াখালী।

তবে অধিকাংশই বিদেশ থেকে এসেছে।

যেমন পুটয়াখালী জেলার কলাপাড়ায় পায়রা তাপ বিদ্যুত কেন্দ্রে ৪জন চিন থেকে এসেছেন।

বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় ইতালি থেকে ৪ জন এসেছেন।

ঝালকাঠির রাজাপুরে ইতালি, সৌদি আরব ও চিন থেকে এসেছেন ৪ জন।

বরিশাল সিভিল সার্জন ডা: মনোয়ার হোসেন জানান, কোয়ারেন্টাইনে রাখা প্রবাসীরা ইতালির মিলান থেকে ২ মার্চ ঢাকায় আসেন।

এরপর বরিশাল বিমান বন্দর হয়ে তারা বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলায় নিজ বাড়িতে আসেন।

সেখানে তারা ১০ মার্চের আগ পর্যন্ত অন্যান্য মানুষের সাথে স্বাভাবিক চলাফেরা করেন।

পরে ১০ মার্চ থেকে তাদের নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইন করেন।

বরিশাল জেলা প্রশাসক এসএস অজিয়র রহমান জানান, গৌরনদী থেকে ১ জনকে বরিশাল মেডিকেলে প্রেরণ করা হচ্ছে।

সেখানে তার করোনা ভাইরাস আছে তা নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় প্রেরণ করা হবে।

অন্যান্যরা হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network