২৩শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

স্পেনের রানি করোনায় আক্রান্ত

আপডেট: মার্চ ১৩, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ইউরোপের দেশ স্পেনের রানি লেতিজিয়া।

স্পেন সরকারের এক মন্ত্রীও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

ধারণা করা হচ্ছে, ওই মন্ত্রীর সংস্পর্শে এসেই করোনায় আক্রান্ত হন রানি।

কেননা, সম্প্রতি রানি লেতিজিয়া ওই মন্ত্রীর গালে চুমু খেয়েছিলেন।

এদিকে, স্পেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর হার এক লাফে বেড়েছে ৮০ শতাংশ।

এরপর প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে আরও মানুষের সংক্রমণ ঠেকাতে সোমবার থেকে দেশটির সব স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

কাতালোনিয়া এবং গ্যালিসিয়ার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো শনিবার থেকে বন্ধ হচ্ছে।

বাকিগুলো বন্ধ হবে সোমবার থেকে।

আর মাদ্রিদ ও লা রিওজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আগে থেকেই বন্ধ রয়েছে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর অন্তত দুই সপ্তাহ বন্ধ থাকবে।

প্রয়োজনে বন্ধের এ মেয়াদ আরও বাড়ানো হতে পারে।

পর্তুগালের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোও সোমবার বন্ধ হচ্ছে বলে খবর রয়েছে এবং গোটা মার্চ মাসই তা বন্ধই থাকবে।

এরমধ্যে বৃহস্পতিবার স্পেনের ৪টি শহর অবরুদ্ধ করা হয়েছে।

স্পেনে এটিই প্রথম এ ধরনের পদক্ষেপ।

মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া ভাইরাসের কারণে সম্ভাব্য আর্থিক ক্ষতি কিভাবে পুষিয়ে নেয়া হবে সে বিষয় দিকনির্দেশনাও দেয়া হয়েছে সরকারের তরফ থেকে।

সাম্প্রতিক এ পরিস্থিতিকে সুনামি আখ্যা দিয়েছেন দেশটির হোটেল ব্যবসায়ীরা। এ ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসার ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন।

গত শুক্রবার একটি অনুষ্ঠানে স্পেনের মন্ত্রী আইরিন মনতেরোর সঙ্গে করমর্দন করেছিলেন রানি লেতিজিয়া।

একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে ওই অনুষ্ঠানে রানি ও মন্ত্রী একে অপরের গালে ঐতিহ্যবাহী ‘স্প্যানিশ কিস’ দিচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে যেভাবে চারটি শহর অবরুদ্ধ করেছে স্পেন, এর আগে ইতালিও একই ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছিল।

আপাতত ওই চার শহরে বাইরের কেউ ঢুকতে পারছেন না, আবার ভেতর থেকে কেউ বের হতে পারছেন না।

অবশ্য বিশেষ ক্ষেত্রে পুলিশের অনুমতি নিয়ে রাত ১২টা পর্যন্ত শহর থেকে বের হওয়া যাবে।

এ চার শহরই বার্সেলোনা প্রদেশের ভেতর পড়ে।

শহর চারটিতে প্রায় ৭৬ হাজার মানুষের বাস।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network