১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

বরিশালের ২১ ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টাইনে

আপডেট: মার্চ ১৪, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
  • বরিশাল ব্যুরো

করোনা ভাইরাসের জীবাণু থাকতে পারে এমন সন্দেহে বরিশাল বিভাগের ২১ জন ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

গত সপ্তাহে দেশে করোনা ভাইরাসে তিনজন শনাক্ত হয়েছেন বলে রোগতত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এমন ঘোষণা দেয়।

এরপর থেকে বাড়তে থাকে আতংক।

তবে গত তিন দিনে বরিশালের ৪ জেলার ২১ জন ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়।

নতুন করে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার ২ জন ও মুলাদী উপজেলার ১জনকে।

এছাড়া ভোলা জেলার সদর উপজেলায়ও একজনকে হাম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

এর আগ গত শুক্রবার পটুয়াখালী জেলার দুমকী উপজেলায় একজন ও ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলায় এক জন নতুন করে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

এরা সবাই বিভিন্ন দেশ থেকে সম্প্রতি বাংলাদেশে এসেছেন।

জেলা ও উপজেলা স্বাস্থ্যকর্মীরা হোম কোয়ারেন্টাইনের প্রধান পর্যবেক্ষক হিসেবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

তবে এদের মধ্যে এখন পর্যন্ত কারও শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি।

বর্তমানের বরিশাল জেলার ১০ জন, ঝালকাঠি জেলার ৫ জন ও পুটয়াখালী জেলার ৫ জন ও ভোলা জেলায় একজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

এদিকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জেলা জেলায় করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটি কমিটিসহ বিভিন্ন সচেতনতামূলক কর্মসূচী পালন করা হচ্ছে।

বিভাগের ৬ জেলায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে ৯১৯ বেড।

খোলা হয়েছে করোনা ইউনিট।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা: বাসুদেব কুমার দাস বলেন, গত ৩ দিনে বিভাগের ৪ জেলায় ২১ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

জেলাগুলো হচ্ছে ভোলা, বরিশাল, ঝালকাঠি ও পটুয়াখালী।

তবে অধিকাংশই বিদেশ থেকে এসেছে। ##

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network