১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

পিরোজপুর জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে ১২০ ব্যক্তি

আপডেট: মার্চ ২০, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশাল ব্যুরো

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে পিরোজপুর জেলায় ১২০ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

যা আগের ২৪ ঘণ্টার দ্বিগুণেরও বেশী।

শুক্রবার স্ব^াস্থ্য অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস এ তথ্য জানিয়েছেন।

হিসাব অনুযায়ী, বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ৬ জন, বরিশালে ১৪৫ জন, পটুয়াখালীতে ৭৭ জন, ভোলায় ১৮০ জন, পিরোজপুরে ১২০ জন, বরগুনায় ১৪০ জন ও ঝালকাঠিতে ৯১ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

এর মধ্যে ১ জনকে প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানান, বরিশাল বিভাগে কোয়ারেন্টিনে থাকা ৭৬৪ জনের অধিকাংশই প্রবাসী।

তবে বরিশাল বিভাগে এখন পর্যন্ত কারো করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

স্বাস্থ্য পরিচালক বলেন, কোয়ারেন্টিনে থাকা লোকজনদের পর্যবেক্ষণ করছেন স্বাস্থ্য বিভাগের স্বাস্থ্যকর্মী।

পাশাপাশি এদের সবাইকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখার কাজে জেলা-উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন সহায়তা করছে।

আমরা ইউনিয়ন থেকে জেলা পর্যায়ে আমাদের সার্সিং কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি।

আর সেবিকাসহ চিকিৎকদের নিরাপত্তায় পারসোনাল প্রটেকশন সরঞ্জাম এরইমধ্যে উপজেলা পর্যায়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ফলে সংশিøষ্টদের শঙ্কার কোনো কারণ নেই।

বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী বলেন, বরিশাল বিভাগে ১০ হাজারের ওপর বিদেশফেরতের যে সংখ্যা শোনা যাচ্ছে, বা¯Íবে তার চিত্র ভিন্ন।

কারণ ঢাকা কিংবা অন্যত্র থাকেন তারা গ্রামের বাড়ির ঠিকানা এখানে দেখিয়েছেন।

কিন্তু তারা বিদেশ থেকে এসে বরিশালে আদৌ আসেননি।

তবে সুনির্দিষ্ট করে বিদেশফেরতদের শনাক্ত করতে গ্রাম পর্যায়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বার, স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মী ও পুলিশ সদস্যরা কাজ করছে। ##

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network