১২ই জুলাই, ২০২০ ইং, রবিবার

 

জুটিতে সবার ওপরে সাকিব-মুশফিক

আপডেট: মার্চ ২২, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

উদ্ভূত করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় নানার পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে ভারতের সরকার।

এরই মাঝে দেশে দুই সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ কাইফ ও যুবরাজ সিংকে আবারও জুটি গড়ার পরামর্শ দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

২০০২ সালের ন্যাটওয়েস্ট সিরিজের ফাইনালে ইংল্যান্ডের লর্ডসে কাইফ-যুবরাজের জুটিতেই ঐতিহাসিক এক জয় পেয়েছিল সৌরভ গাঙ্গুলির দল।

এর আগে রাহুল দ্রাবিড় ও ভিভিএস লক্ষণের জুটিতে টেস্ট ইতিহাসের অন্যতম সেরা এক জয় তুলে নিয়েছিল ভারত।

ক্রিকেট ইতিহাসে এমন জুটি গড়ে দলকে উদ্ধারের নজির আছে অনেক।
ক্রিকেট মাঠে জুটি গড়তে বাস্তব জীবনে বন্ধুত্ব কিংবা বাস্তব জীবনের বন্ধুত্বের সুবাদে ক্রিকেট মাঠে ভালো জুটির উদাহরণও পাওয়া যায় বেশ কিছু।

এই যেমন শ্রীলঙ্কার মাহেলা জয়াবর্ধনে ও কুমার সাঙ্গাকারা মিলে টেস্ট তথা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ইতিহাসেরই সর্বোচ্চ ৬২৪ রানের জুটি গড়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।

বাস্তব জীবনেও এ দুজনের বন্ধুত্ব দারুণ।

বাংলাদেশ দলের ক্ষেত্রে এই জুটি গড়ে দলকে এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে অন্য সবার চেয়ে এগিয়ে মুশফিকুর রহীম ও সাকিব আল হাসান জুটি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দুজনের শুরুটা ঠিক কাছাকাছি সময়ে।

তারপর থেকে এখনও পর্যন্ত অসংখ্যবার টাইগারদের উদ্ধারকর্তা হিসেবে হাজির হয়েছে সাকিব-মুশফিক জুটি।

যার প্রমাণ মেলে পরিসংখ্যানে। দেশের ইতিহাসের সর্বোচ্চ রানের জুটিটি তাদেরই দখলে।

২০১৭ সালে নিউজিল্যান্ড সফরের ওয়েলিংটন টেস্টে বিরুদ্ধ কন্ডিশনে সাহসী ব্যাটিংয়ে ৩৫৯ রানের জুটি গড়েছিলেন সাকিব ও মুশফিক।

সাকিবের ব্যাট থেকে আসে ২১৭ রানের ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ইনিংস, মুশফিক করেন ১৫৯ রান।

শুধু এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের জুটি নয়, সবমিলিয়ে জুটি গড়ে সর্বোচ্চ রান করার তালিকাতেও সবার ওপরে সাকিব-মুশফিক।

তিন ফরম্যাট মিলে ১৬৯ ইনিংসে জুটি বেঁধেছেন এ দুই ব্যাটসম্যান।

যেখানে ১১টি শতরানের ও ৩৭টি অর্ধশতরানের জুটি গড়ে মোট ৬১১২ রান যোগ করেছেন সাকিব ও মুশফিক।

ওয়ানডে ফরম্যাটে ৮৪ ইনিংসে ৬টি শতরানের ও ১৯টি অর্ধশতরানের জুটি গড়ে মোট ৩০৯৪ রান যোগ করেছেন এ দুজন।

একদিনের ক্রিকেটে তাদের সর্বোচ্চ রানের জুটিটি ১৪৮ রানের।

টেস্ট ক্রিকেটে ৫৮ ইনিংসে ৪টি শতরানের ও ১৬টি অর্ধশতরানের জুটি গড়ে মোট ২৪৫৪ রান করেছেন সাকিব-মুশফিক।

এছাড়া টি-টোয়েন্টিতে ১ সেঞ্চুরি ও ২ ফিফটির জুটিতে তাদের সংগ্রহ ৫৬৪ রান।

শুধুমাত্র এই ফরম্যাটেই গড়ে সম্মিলিত রানের রেকর্ডের শীর্ষে নেই সাকিব ও মুশফিক।

বাংলাদেশের পক্ষে কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে জুটি গড়ে সর্বোচ্চ ৫৯৩ রান যোগ করেছেন মুশফিকুর রহীম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

সবমিলিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে জুটি গড়ে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটা শ্রীলঙ্কার দুই কিংবদন্তি মাহেলা জয়াবর্ধনে ও কুমার সাঙ্গাকারার দখলেই।

তিন ফরম্যাট মিলে ২৯৩ ইনিংসে জুটি বেঁধে ৩৬টি সেঞ্চুরি ও ৬২টি হাফসেঞ্চুরির সাহায্যে ১৩৩৬৮ রান করেছেন সাঙ্গা-জয়া।

ক্রিকেট ইতিহাসে আর কোনো জুটির ১৩ হাজার রান করার রেকর্ড নেই।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network