২৮শে মে, ২০২০ ইং, বৃহস্পতিবার

 

বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ-শুক্লা দাশ গুপ্তা

আপডেট: এপ্রিল ১৬, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

‘তাঁরে চোখে দেখিনি শুধু বাঁশি শুনেছি ‘—
হ্যাঁ, আমি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা বলছি।যাঁর একটি অঙ্গুলি নির্দেশনায় বাঙালি জাতি ঝাঁপিয়ে পড়েছিল স্বাধীনতার অস্তমিত সূর্যকে ছিনিয়ে আনতে।যাঁর সাত মার্চের ভাষণ পৃথিবীর শ্রেষ্ঠতম ভাষণের মধ্যে অন্যতম।তিনি তাঁর দরাজ কণ্ঠে উচ্চারণ করেছিলেন,
“এবারের সংগ্রাম আমাদের
মুক্তির সংগ্রাম,
এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”।
সেই থেকে স্বাধীনতা শব্দটি বাঙালির হয়ে গেল।কোন সাধারণ মানবের পক্ষে নেতৃত্ব দিয়ে জেলে বসে স্বাধীনতা সংগ্রামে বিজয় অর্জন করা সম্ভব ছিল না। এটা এক এবং বাংলাদেশের অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষেই সম্ভব।সেই বাহান্নর ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ৬৯ গণ অভ্যুত্থান, ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ , যুদ্ধ পরবর্তী বিধ্বস্ত বাংলাদেশের পুনর্গঠন, ৭৪ সালের দুর্ভিক্ষ মোকাবিলা সহ বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন প্রচেষ্টায় নিজেকে বিলিয়ে দিয়ে গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন সোনার বাংলা।কিন্তু তাঁর এই স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে যখন তিনি মরিয়া হয়ে উঠেছেন ঠিক তখনই একদল ঘাতকের বুলেটে পরিবারের সদস্য এবং আত্মীয় পরিজনের সাথে ঝাঁঝরা হতে হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।ভাগ্যক্রমে বেঁচে থাকেন তাঁর দুজন সুযোগ্য কন্যা, বর্তমানে বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তাঁর ছোট বোন শেখ রেহানা।
পঁচাত্তর পরবর্তী বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর নাম উচ্চারণ করাও ছিল যেন এক বিশাল অপরাধ। ঘাতকের দল চারনেতাকে জেলখানায় বসে হত্যা করলে আরও নড়বড়ে হয়ে যায় বাংলাদেশ।
এরপর বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশে ফিরে দেশের সব বঙ্গবন্ধু অনুসারীদের সাথে নিয়ে দল পুনর্গঠনের করেন।নব্বইয়ের আন্দোলনে স্বৈরাচারী সরকারের
পতন ঘটে।বিপুল ভোট পেয়েও হেরে গিয়ে সরকার গঠন করতে পারেনি আওয়ামী লীগ।তারপর ৯৫ সালে ক্ষমতায় এসে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলেও ২০০১সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের মাধ্যমে আবার ক্ষমতায় আসে বিএনপি সরকার।এরপর পর্যায়ক্রমে নানা চড়াই উতরাই পেরিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ পর পর তিনবার ক্ষমতায় আসে।প্রধানমন্ত্রী হন বরাবরের মতোই জননেত্রী শেখ হাসিনা।তাঁর একটাই লক্ষ্য, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়ন। বেঁচে থেকে বাঙালির হৃদয়পটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেভাবে জাগ্রত ছিলেন আজও বঙ্গবন্ধু একইরকম ভাবে জাগ্রত আছেন বাঙালির অন্তরে।
তাঁর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সকল দেশপ্রেমিক মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে গড়ে তুলবে সোনার বাংলা এ প্রত্যাশা আমাদের সকলের।
জয় বাংলা, জয়তু বঙ্গবন্ধু।

(কোলকাতায় আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষ্যে আয়োজিত আন্তর্জাতিক অনুষ্ঠানে প্রকাশিত স্মারকগ্রন্থে প্রকাশিত হয়েছে আমার ছোট্ট লেখাটি।

শ্রদ্ধেয় দেবব্রত দাদার অনুপ্রেরণায় বঙ্গবন্ধু স্মরণে লিখেছিলাম উপরোক্ত লেখাটি।
ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা দাদা।

আপনি গত এক বছর ধরে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষ্যে নানা কর্মসূচি পালনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে যাচ্ছেন বাংলাদেশ ভারতের বিভিন্ন স্থানে।ভবিষ্যতে বাংলাদেশ এবং ভারতের বাইরেও আপনার আয়োজন সার্থক হোক,
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে দেখা লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন হোক এ প্রার্থনা করছি।

জন্মদিনে গভীর শ্রদ্ধা এবং প্রণাম বঙ্গবন্ধু তোমাকে)

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network