৩১শে মে, ২০২০ ইং, রবিবার

 

মেহেন্দিগঞ্জে চাল চুরির ঘটনায় লিখিত অভিযোগ !

আপডেট: এপ্রিল ১৬, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের বিদ্যানন্দপুর ইউনিয়নে জেলেদের চাল চুরি অভিযোগে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে অভিযোগ করেছে স্থানীয় জেলেরা । প্রতিমাসে দুই কেজি করে মোট ৮০ কেজি চাল নিবন্ধিত জেলেদের বরাদ্দ দেয়ার কথা থাকলেও মাত্র ৩০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়েছে, এমন অভিযোগে এ অভিযোগ দায়ের করেন স্থানীয় জেলেরা। বুধবার বিকেলে বরিশাল জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, গোয়েন্দা বিভাগ, মৎস্য অধিদপ্তর এবং মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা কার্যালয়ে এ লিখিত অভিযোগ করা হয় ।সরকারি চাল বঞ্চিত উপজেলার বিদ্যানন্দপুর ইউনিয়নের ১৯ জন জেলে বাসিন্দা এ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, ফেব্রুয়ারি-মার্চ এ দুই মাসের ৪০ কেজি করে মোট ৮০ কেজি চাল জেলেদের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। কিন্তু গত ৮ এপ্রিল জেলেদেরে ঐ বরাদ্দের ৩০ কেজি করে চাল বিতরণ করে বাকি ৫০ কেজি চাল কম দেয়া হয়েছে।এ সময় স্থানীয় ভ্যান চালক নজরুল ব্যাপারী ভানে করে সরকারি চাল অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় মতলেব মাতুব্বর, দেলোয়ার মাতুব্বর, আবুল বাশার গাজীসহ স্থানীয়রা সরকারি চাল ধরে ফেলে এবং তাৎক্ষণিক কাজিরহাট থানায় বিষয়টি অবহিত করলে ওসি (তদন্ত )আব্দুল খালেক আটককৃত চাল জব্দ করে থানায় নিয়ে যায় । কিন্তু মোতালেব মাতুব্বর মামলা করতে চাইলে রহস্যজনক কারণে থানা মামলা নেয়নি বরং কেন চাল ধরা হয়েছে এজন্য তাদেরকে ভর্ৎসনা করেন ।

অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয় ওই এলাকার ইয়াসমিনের নিকট ৮ বস্তা, গফুর ব্যাপারীর নিকট ৪ চার বস্তা সহ একাধিক ব্যক্তির নিকট সরকারি চাল বিক্রি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলে সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক আনোয়ার হোসেন জানান, সবসময়ই জেলেদের চাল নিয়ে অনিয়ম করা । হয় কিন্তু বর্তমানে দুই মাস অভয়াশ্রম এলাকায় মাছ শিকার নিষিদ্ধ । এ সময় সাধারনত জেলেরা বিকল্প কর্মসংস্থান করে জীবিকা নির্বাহ করতো। কিন্তু বর্তমানে করোনা ভাইরাসের কারণে সকল ধরনের কর্মকাণ্ড বন্ধ । এমন অবস্থায় জেলেদের সরকারি রিলিফের চাল আত্মসাৎ করে কালোবাজারে বিক্রি করা হয়েছে। এই ঘটনায় জড়িত প্রত্যেকের অবিলম্বে গ্রেপ্তার দাবি করেন তিনি ।

বরিশাল জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আবু সায়ীদ বলেন ,বরিশাল জেলায় ৯ উপজেলায় ৩১ হাজার ৭১৫ জন জেলেকে দুই মাসের সহায়তা দেওয়া হচ্ছে । প্রত্যেককে ৪০ কেজি করে মোট ৮০ কেজি চাল দেয়া হচ্ছে। কোন জেলেকে ৮০ কেজির কম চাল দেয়ার সুযোগ নেই । যদি কেউ দিয়ে থাকে তাহলে সে প্রতারণা করছে । মেহেন্দিগঞ্জের বিদ্যানন্দপুরে জেলেদের চাল আত্মসাতের লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন বলে জানান তিনি । এ বিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ এতে বলা হয়েছে। বরিশাল জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান বলেন,চাল নিয়ে অনিয়মের কারনে ইতিমধ্যে মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার আন্দারমানিক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে মামলা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কোথাও আমি অনিয়মের অভিযোগ গেলে তাৎক্ষণিক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহস করবো।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network