৮ই আগস্ট, ২০২০ ইং, শনিবার

 

৬৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে খেলাঘরের ডাক দুধ ও খাদ্য সহায়তা নিয়ে প্রতিটি অসহায় শিশুর পাশে দাঁড়ান

আপডেট: এপ্রিল ৩০, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার

করোনা সংকটের মধ্যে নিজেদের খাবার ও প্রতিদিনের ব্যয় থেকে বাঁচানো অর্থে দুধ ও খাদ্য সহায়তা নিয়ে অসহায় শিশুদের পাশে দাঁড়াতে দেশের সকল কর্মী-সংগঠকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জাতীয় শিশু কিশোর সংগঠন কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর।

আগামী দুই মে খেলাঘরের ৬৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পঠানো এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়।

শিশু অধিকার সুরক্ষায় ১৯৫২ সালের দুই মে কবি রণেশ দাশগুপ্ত, সাংবাদিক শহিদুল্লাহ কায়সার, কবি হাবিবুর রহমান, সাংবাদিক বজলুর রহমান, সাহিত্যিক সাংবাদিক সত্যেন সেন সহ অসংখ্য আলোকিত মানুষের হাত ধরে খেলাঘরের যাত্রা শুরু হয়।

‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নতুন প্রজন্ম গড়ে তোল’ এই শ্লোগানে সংগঠনটি এখন সারাদেশে ছয় শতাধিক শাখা আসর নিয়ে কর্মকা- পরিচালনা করছে।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সাবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সংগঠনের সভাপতিমন্ডলীর চেয়ারম্যান অধ্যাপিকা পান্না কায়সার ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক প্রণয় সাহা।

এক শুভেচ্ছা বার্তায় নেতৃবৃন্দ বলেন, বৈশি^ক মহামারি কোভিড-১৯ এর কারণে এবার অনাড়ম্বরভাবে খেলাঘর জন্মদিন পালন করবে।

করোনা প্রতিরোধে বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থা ও সরকারের পক্ষ থেকে গৃহিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, ঘরে বন্দি শিশুদের শারিরীক ও মানসিক বিকাশ ধরে রাখতে তাদের সৃষ্টিশীল কাজে উৎসাহিত করার বিকল্প নেই।

তাই নিজে বই পড়া ও শিশু কিশোরদের ভালো বই পড়তে উৎসাহ দেয়া সহ সাহিত্য চর্চার সুযোগ করে দিতে হবে।

পাশাপাশি শিশুদের সবসময় আনন্দময় পরিবেশে রাখতে অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন এই শিশু সংগঠনের নেতারা।

সেইসঙ্গে শিশুরা যেন কোনভাবেই নিষ্ঠুর ও অমানবিক আচড়ণের শিকার না হয় সেদিকেও খেয়াল রাখতে অভিভাবদের আরো যতœশিল হওয়ার তাগিদ দিয়েছেন তারা।

করোনা  রোধে কুসস্কারে আচ্ছন্ন না হয়ে বিজ্ঞানের উপর আস্থা রাখতে সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে খেলাঘর নেতৃবৃন্দ বলেন, কোন রকম কুসস্কার বা ঝাঁড় ফুকে বিশ^াস করে প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করা যাবে না।

প্রতিষেধক আবিস্কারে বিভিন্ন দেশে বিজ্ঞানীরা প্রাণপণ গবেষণা চলাচ্ছেন। ইতিবাচক সাড়া মিলেছে অনেকে দেশে।

ভেকসিনে আশার আলো দেখছে গোটা বিশে^র মানুষ। আমরা বিশ^াস করি প্রতিষেধক আবিস্কারের মধ্য দিয়ে পৃথিবী থেকে নির্মূল হবে কোভিড-১৯। ফিরবে  স্বাভাবিক জীবনযাত্রা।

দুধ ও খাবার নিয়ে অন্তত একজন অসহায় শিশুর পাশে দাঁড়াতে সারাদেশে সংগঠন ও কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে খেলাঘর নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনার কারণে দীর্ঘদিন কার্যত লকডাউনে সারাদেশ।

নি¤œ আয়ের মানুষের সঙ্গে অসহায় শিশুদের কষ্ট বেড়েছে।

বেড়েছে খাদ্য সংকট। অনেকে খাবারের অভাবে মানবেতর জীবন যাপন করছে।

তাই নিজে কম খাবার খেয়ে ও প্রতিদিনের ব্যয় থেকে সামান্য টাকা বাঁচিয়ে অসহায় শিশুর পাশে মানবিক সহায়তা নিয়ে দাঁড়ানো প্রয়োজন।

প্রতিবারের মত এবারও খেলাঘরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিতে নানা কর্মসূচী নেয়া হলেও করোনার কারণে তা স্থগিত করা হয়েছে।

সংগঠনের ৬৮তম প্রতিবার্ষির্কী উপলক্ষে কেন্দ্রীয় সমন্বয়ে ১২টি জেলা শাখার পৃথক অংশগ্রহণে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সিডি প্রচারের জন্য বিভিন্ন টেলিভিশনে পাঠানো হয়েছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network