২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, রবিবার

 

সৌদি আরবে একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১১, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুথি।

রিয়াদের গুরুত্বপূর্ণ টার্গেটে এই হামলা চালানোর দাবি করেছে গোষ্ঠীটি।

ইয়েমেনে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াইরত সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট এক বিবৃতিতে বলেছে, রিয়াদের দিকে ধেয়ে আসা একাধিক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও বিস্ফোরক ড্রোন ভূপাতিত করেছে জোটের সৈন্যরা।

বিবৃতিতে বিস্তারিত কোনও তথ্য না দিয়ে বলা হয়েছে, ইরান-সমর্থিত ইয়েমেনের হুথি গোষ্ঠী সৌদি আরবে বেসামরিক টার্গেটে ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন নিক্ষেপ করেছে।

হুথি সামরিক শাখার মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারিয়া বলেছেন, তারা রিয়াদে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা লক্ষ্য করে একটি দুল-ফাক্কর ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও তিনটি সামাদ-৩ ড্রোন ছুড়েছে। অতীতেও ইয়েমেনি এই বিদ্রোহী গোষ্ঠী সৌদি আরব লক্ষ্য করে বেশ কয়েকবার হামলা চালিয়েছে।

টুইটারে দেয়া এক বিবৃতিতে সারিয়া বলেছেন, আমাদের দেশের বিরুদ্ধে শত্রুদের অব্যাহত অবরোধ এবং স্থায়ী উসকানির জবাবে এই হামলা চালানো হয়েছে। ইয়েমেনের বিরুদ্ধে সৌদি আরবের আগ্রাসন অব্যাহত থাকলে আরও হামলা চালানো হবে বলে অঙ্গীকার করেছেন তিনি।

২০১৪ সালে ইরান সমর্থিত ইয়েমেনের বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুথি রাজধানী সানা-সহ দেশটির অধিকাংশ এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। সেই সময় দেশটির প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর আল হাদি হুথি বিদ্রোহীদের হামলা থেকে বাঁচতে পালিয়ে সৌদি আরবে আশ্রয় নেন।

পরের বছরের মাঝের দিকে ইয়েমেনের পলাতক এই প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতায় বসানোর লক্ষ্যে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইয়েমেনে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে বিমান হামলা শুরু করে। সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের এই হামলা শুরুর পর থেকে এক লাখের বেশি ইয়েমেনির প্রাণহানি ও লাখ লাখ মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছেন।

জাতিসংঘ বলছে, খাদ্য, বাসস্থান ও নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর মারাত্মক সঙ্কট তৈরি হওয়ায় ভয়াবহ দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে ইয়েমেন।

সূত্র: রয়টার্স।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network