২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, রবিবার

 

পশ্চিমবঙ্গের এমপি মিমির এ্যাকশন

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

ট্যাক্সি থেকে কটূক্তি এবং অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করায় গাড়ি থেকে নেমে সোমবার গভীর রাতে এক ট্যাক্সিচালককে পুলিশে দিলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের এমপি ও অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী।

জিম থেকে বাড়ি ফেরার পথে সোমবার গভীর রাতে বালিগঞ্জ এবং গড়িয়াহাটের মাঝামাঝি এলাকায় ট্রাফিক সিগন্যালে পড়ে মিমির গাড়ি। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

তখন একটি ট্যাক্সি তার গাড়িকে ওভারটেক করে। মিমি কাচ নামিয়েছিলেন। তখনই তিনি লক্ষ্য করেন, পাশে দাঁড়ানো ট্যাক্সিটির চালক তার দিকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করছে।

এ সময় গাড়ি থেকে নামেন মিমি। ট্যাক্সিচালককেও টেনে নামান। ততক্ষণে রাস্তায় লোক জমে গেছে।

এর পর মিমি যোগাযোগ করেন পুলিশের সঙ্গে। পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে অভিযুক্ত চালকের খোঁজ শুরু করে। রাতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মিমি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সরকারি গাড়ি দেখেও যদি একজন ট্যাক্সিচালক তার আরোহীকে উদ্দেশ্য করে প্রকাশ্যে এমন অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি ও মন্তব্য করতে পারে, তা হলে সাধারণ মানুষের কী অবস্থা হতে পারে!’

মিমি জানান, সে কারণেই তিনি কালক্ষেপণ না করে গাড়ি থেকে নেমে প্রতিবাদ করেন এবং পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান।

পুলিশ জানায়, সোমবার দিবাগত রাত ১টার দিকে বালিগঞ্জ ফাঁড়ির কাছে ক্রমাগত হর্ন দিতে দিতে মিমির গাড়িকে ওভারটেক করে একটি ট্যাক্সি।

মিমি গাড়ি থেকে নেমে ট্যাক্সিটি দাঁড় করান। তখন ট্যাক্সিচালক অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে মিমির উদ্দেশে অনবরত কটূক্তি করে যাচ্ছিলেন।

এমপি মিমি দ্রুত এক কর্তব্যরত সার্জেন্টের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। ওই সার্জেন্ট আধ ঘণ্টার মধ্যে ট্যাক্সিসহ দেবা যাদব (৩২) নামে ওই চালককে আটক করেন।

তাকে গ্রেফতার করা হয় বাইপাসের ধারে আনন্দপুর থানা এলাকা থেকে। আটক ওই চালকের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানি, অশ্লীল ইঙ্গিত এবং কটূক্তির ধারায় গড়িয়াহাট থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

এর আগেও মিমিকে এমন প্রতিবাদী ভূমিকায় দেখা গেছে। বছর চারেক আগে এক পথচারীকে একটি বাইক ধাক্কা মেরে হিঁচড়ে নিয়ে যাচ্ছে দেখে মিমি গাড়ি থামিয়ে রুখে দাঁড়ান।

বাইক আরোহীকে থামিয়ে তাকে রাস্তাতে নামিয়ে দু-চার ঘা দিয়ে পুলিশে দেন। পরে দেখা যায়, ওই বাইকচালক মাতাল অবস্থায় ছিলেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network