২৪শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

আমতলীতে সরকারী জমিতে রাতের আধারে গাছের চারা রোপন করে দখল!

আপডেট: অক্টোবর ৩, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বরগুনার আমতলী পানি উন্নয়ন বোর্ডের এক একর জমিতে বিএনপি নেতা ভুমিদস্যু মোঃ কালাম হাওলাদার শুক্রবার রাতে গাছের চারা রোপন করে জমি দখল করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

খবর পেয়ে ওই রাতেই পুলিশ ভুমিদস্যু কালামের মোটর সাইকেল ও ২৫টি বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা জব্দ করেছে।

ওই জমির স্থানীয় মুল্য অন্তত অর্ধকোটি টাকা। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জানাগেছে, ১৯৬১ সালে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড আমতলী উপজেলার চাওড়া ও ঘটখালী মৌজায় ১’শ ৩০ একর জমি অধিগ্রহন করে।

ওই জমিতে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড আমতলী উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলীর কার্যালয় নির্মাণ করে।

ওই অফিসের আবাসিক এলাকা সংলগ্ন পানি উন্নয়ন বোর্ডের এক একর জমি রয়েছে।

ওই জমির স্থানীয় মুল্য অন্তত অর্ধকোটি টাকা।

অভিযোগ রয়েছে পাউবো জমি অধিগ্রহন করলেও কালাম হাওলাদারের বাবা চাওড়া ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আবদুল হাই হাওলাদার ১৯৬৩ সালে ওই জমির ভুয়া দলিল তৈরি করে ভোগদখলের চেষ্টা চালায়।

কিন্তু পাউবোর প্রচেষ্টায় ভুয়া দলিল প্রমানিত হলে তিনি জমি দখলে ব্যর্থ হয়।

ভুমিদস্যু চাওড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সহ-সভাপতি মোঃ কালাম হাওলাদার তার বাবার দলিল মুলে ওই জমি দখলের জন্য শুক্রবার রাতে তার সহযোগী কামাল ও ছেলে আসাদসহ ১০-১২ জন লোক বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা রোপন করে।

খবর পেয়ে আমতলী থানা পুলিশ ওই রাতে ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ভুমিদস্যু কালামসহ সকলে পালিয়ে যায়।

ওই সময় পুলিশ কালামের একটি মোটর সাইকেল ও বিভিন্ন প্রজাতির ২৫টি গাছের চারা জব্দ করেছে।

এছাড়াও অভিযোগ রয়েছে, কালাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করে অন্যের কাছে বিক্রি করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

রাতের আধারে গাছ লাগিয়ে জমি দখলের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

দ্রæত ভুমিদস্যু বিএনপি নেতা কালামের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন এলাকাাবাসী।
শনিবার সরেজমিনে ঘুরে দেখাগেছে, পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের আবাসিক এলাকার সংলগ্ন জমিতে গাছের চারা রোপন করা রয়েছে।

আমতলী পৌরসভার প্যানেল মেয়র মোঃ হাবিবুর রহমান বলেন, কালাম শুক্রবার রাতে সরকারী জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা লাগিয়ে জমি দখল করেছে। তিনি আরো বলেন, কালাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করে বিভিন্ন মানুষের কাছে বিক্রি করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন বলেন, কালাম হাওলাদার তার সহযোগী কামাল ও ছেলে আসাদসহ ১০-১২ জন লোকে শুক্রবার রাতে সরকারী জমিতে গাছের চারা রোপন করে জমি দখল করেছে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে একটি মোটর সাইকেল ও কিছু গাছ নিয়ে গেছে।
এ বিষয়ে কালাম হাওলাদার গাছের চারা রোপনের কথা স্বীকার করে বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাছে আমি ওই জমির ইজারা চেয়েছি কিন্তু তারা আমাকে ইজারা দেয়নি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী মোঃ আজিজুল রহমান সুজন বলেন, কালাম নামের এক লোক রাতের আধারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমিতে অবৈধভাবে গাছের চারা লাগিয়েছে। তিনি আরো বলেন, কালাম কখনো জমির ইজারার আবেদন করেনি। জোড় করে জমি দখল করেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে লোক পাঠিয়েছি।

আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে একটি মোটর সাইকেল ও ২৫ টি গাছের চারা জব্দ করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বরগুনা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ কায়সার আলম বলেন, সরকারী জমিতে গাছের চারা লাগিয়ে জমি দখল করা অন্যায়। এ বিষয়ে দ্রæত আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network