২১শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

কুয়াকাটায় মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ

আপডেট: জুন ৯, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: কুয়াকাটায় মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহার বিরুদ্ধে মৎস্য বন্দর আলিপুরে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ট্রলার মালিক ও মাঝি সমিতি।
বুধবার (৯ জুন) দুপুর ১২টার দিক শতাধিক ট্রলার মালিক এবং মাঝিদের উপস্থিতিতে আলিপুর মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে এই প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
এ সমাবেশে ট্রলার মালিক সাখাওয়াত হোসেন বলেন আজকের ট্রলার মালিক ও মাঝিদের নিয়ে মৎস্য বিষয়ক প্রশিক্ষন দেওয়ার জন্য অবতরণ কেন্দ্রে আসেন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা। এ সময় জেলেদের প্রশিক্ষণ বিষয়ক তালিকা সঠিক ভাবে নির্নয় করার জন্য তাকে বলা হলে অকারণেই তিনি উত্তেজিত হয়ে সমস্ত মাঝিদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল দিয়ে প্রশিক্ষণ না দিয়ে অন্যত্র চলে যায় ।
ইউসুফ মাঝি বলেন কুয়াকাটা ,গঙ্গামতির জেলেদের কাছ থেকে মাছ ধরার নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময়ে ট্রলার প্রতি ১০ হাজার টাকা করে গ্রহন করে জেলেদের মাছ ধরার অনুমতি দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন এই মৎস্য কর্মকর্তা।ফলশ্রুতিতে নিষেধাজ্ঞা থাকাকালীন সময়ে আলিপুর -কুয়াকাটা মৎস্য বন্দরে দেখা গেছে অবাধে চলছে মাছ ক্রয় বিক্রয় কার্যক্রম।
লতাচাপলী ইউপি চেয়ারম্যান ও আলীপুর-কুয়াকাটা মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি আনছার উদ্দিন মোল্লা বলেন, কলাপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহার সাথে যে ঘটনা ঘটেছে এটা দুঃখ জনক। জেলে ও ট্রলার মালিকদের আভ্যরীন কোন্দলে প্রশিক্ষনটি পন্ড হয়ে যায়। এ প্রশিক্ষনটি তাদের একান্ত প্রয়োজন ছিলো।
এ ব্যাপারে কলাপাডা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা তার বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগ অস্বীকার কওে সাংবাদিকদের বলেন, জেলেদের ভীতর অভ্যন্তরীণ এবং রাজনৈতিক কোন্দল থাকার কারনে তারা প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন নি। জেলেদের কোন্দল নিরসনের জন্য তিনি চেষ্টা করেছেন বলে দাবি করেন তবে তারা তা মানেন নি ফলে জেলেরা অন্যত্র চলে গেছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network