৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

বানারীপাড়ায় সাবেক নারী ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে গাছপালাসহ পরিবেশ নষ্টের অভিযোগ

আপডেট: জুন ১৯, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বানারীপাড়া প্রতিনিধি: বরিশালের বানারীপাড়ায় সৈয়দকাঠি ইউনিয়নের সাবেক নারী ইউপি মেম্বার মনোয়ারা বেগমের বিরুদ্ধে গরুর মল-মূত্রের মাধ্যমে চলাচলের রাস্তা, গাছপালা ও পুকুরের পানিসহ পরিবেশ নষ্টের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, ওই ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড তালাপ্রসাদ গ্রামের প্রয়াত গ্রাম পুলিশ আ. মন্নান হাওলাদারের স্ত্রী সাবেক নারী ইউপি মেম্বার মনোয়ারা বেগম দীর্ঘদিন ধরে তার গোয়ালে অনেকগুলো গরু লালন-পালন করে আসছেন। কিন্তু গরুর মলমূত্র প্রতিনিয়ত গোয়ালঘরের বাহিরে ফেলায় সেখান থেকে সীমানা ছাড়িয়ে এখন তা মনোয়ারা বেগমেরই আপন দেবর মিলন হাওলাদারের মেহগিনি বাগানে প্রবেশ করে পার্শ্ববর্তী পুকুরের পানিতে গিয়ে ছড়িয়ে পড়ছে। এতে মিলন হাওলাদারের মেহগিনি ও চাম্বলসহ অর্ধশতাধিক গাছ মারা গেছে। গরুর মলমূত্রের কারণে আরো অনেক গাছপালা মৃত প্রায়। এছাড়াও বাড়ি থেকে বের হওয়ার দীর্ঘদিনের পুরনো রাস্তা এবং পুকুরের পানি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। যা পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে। এছাড়া মলমূত্রের দুর্গন্ধে এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ। এসব কারনে জনস্বাস্থ্য পড়েছে ঝুঁকির মধ্যে। এ ব্যাপারটি মিলনসহ বাড়ির অন্যান্যরা মনোয়ারা বেগমের কাছে জানালে তা শোনা তো দূরের কথা উল্টো তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠে তেড়ে এসে গালিগালাজ করেন বলে মিলনের অভিযোগ। মিলন হাওলাদার এ ব্যাপারে প্রথমে স্থানীয় সাধারণ ইউপি মেম্বার মো. আনোয়ার হোসেন ও পরে ইউপি চেয়ারম্যান আ. মন্নান মৃধাকে জানালেও তারা কোনো সুরাহা করতে পারেননি। ফলে বাধ্য হয়ে মিলন হাওলাদার সম্প্রতি বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিপন কুমার সাহার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। এতেও কাজ না হলে বানারীপাড়া থানা ও বরিশাল জেলা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরেও অভিযোগ করবেন বলে জানান মিলন। এ বিষয়ে সাবেক নারী ইউপি সদস্য মনোয়ারা বেগম জানান, গরুর মলমূত্র ফেলা নিয়ে শুধু মিলন একা অভিযোগ করছেন আমার তো আরও দেবর রয়েছে তারা তো করছেন না। মলমূত্র যেন অন্যের বাগান,বাড়ি,রাস্তা কিংবা পুকুরে না যায় সেজন্য শুকনো মৌসুমে মাটি দিয়ে চারপাশ আটকিয়ে দেওয়া হবে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network