১০ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

অমানবিক! দাফনের দুইদিন পর কবরস্থানের পাশের বেড়া ভেঙ্গে ফেলেছে সন্ত্রাসীরা

আপডেট: জুলাই ২৫, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি-
বাকেরগঞ্জের কবাইতে একজন মৃত নারীকে দাফনের দুইদিন পর তার কবরস্থানের পাশের বেড়া ভেঙ্গে ফেলেছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার কবাই ইউনিয়নের কবাই গ্রামের বৃদ্ধ জলিল সিকদারের স্ত্রী আলেয়া বেগম ২১ জুলাই বুধবার ঈদুল আযহার দিন মৃত্যুবরণ করেন। পরের দিন ২২ জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার সময় মরহুমার জানাজার নামাজ শেষে তার লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। মরহুমা আলেয়া বেগমের সন্তান লাবলু সিকদার ও তার নাতিরা কবরস্থানের পাশে টিনের বেড়া দেয়। টিনের বেড়া দিতে গিয়ে লাবলু সিকদার তাদের রোপনকৃত একটি ছোট চ্যাম্বল গাছের সাথে একটা পেরেক মেরেছিলেন। দুইদিন পর ২৪ জুলাই শনিবার বেলা ১.৩০ টার সময় একই বাড়ির গয়জদ্দিন হাওলাদার ও তার ভাইপো জাকির হাওলাদার স্থানীয় সন্ত্রাসীদের সহায়তায় ওই চ্যাম্বল গাছটি তাদের দাবি করে গাছে পেরেক মারায় তাদের গালাগাল ও হামলা করে কবরস্থানের টিনের বেড়াটি ভেঙ্গে ফেলেন। গয়জদ্দিন হাওলাদাররা শুধু কবরস্থানের বেড়া ভেঙ্গেই ক্ষান্ত হয়নি। উপরন্তু এ ঘটনায় গয়জদ্দিন হাওলাদার বাদি হয়ে মৃত আলেয়া বোগমের পুত্র লাবলু সিকদার, তার নাতি মিরাজ খান, নাছিম খান, আফালকাঠী গ্রামের আবিদ খান, শাহরিয়ার খানসহ ৭-৮ জনের বিরুদ্ধে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন। মরহুমা আলেয়া বেগমের পুত্র লাবলু সিকদার এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ন্যায় বিচারের দাবি জানিয়েছেন। এলাকাবাসী এ অমানবিক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রশাসনের সুদৃষ্টি ও সহায়তা কামনা করেছেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network