৯ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

কিউইদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের উচ্ছ্বাস

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বোলাররাই কাজটা করে দিয়েছিলেন সহজ। নাসুম আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমানের তোপে মাত্র ৯৩ রানে আটকে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। তবে মন্থর উইকেটে এই রান তুলতেই বিস্তর ভুগতে হলো ব্যাটসম্যানদের। শেষ পর্যন্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ব্যাটে শঙ্কা কাটিয়ে তীরে ভিড়েছে তরী। সারথী ছিলেন নাঈম শেখ আর আফিফ হোসেন। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এসেছে প্রথম টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়।

বুধবার মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে ৫ বল আগে কিউইদের ৯৩ পেরিয়ে ৬ উইকেটে জিতেছে মাহমুদউল্লাহর দল। নাসুম ১০ রানে ৪ আর মোস্তাফিজ ১২ রানে ৪ উইকেট নেয়ার পর ব্যাট হাতে বাংলাদেশের নায়ক অধিনায়কই। ৪৮ বলে অপরাজিত ৪৩ এসেছে তার ব্যাটে। ৩৫ বলে ২৯ করে প্বার্শনায়ক নাঈম।

এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজ এক ম্যাচ বাকি থাকতে ৩-১ ব্যবধানে নিশ্চিত করল স্বাগতিকরা।

৯৪ রানের লক্ষ্য ছুঁতে নেমে তৃতীয় ওভারে কোল ম্যাকনকিকে স্লগ সুইপের চেষ্টায় ডিপ স্কয়ার লেগে ফিন অ্যালেনের হাতে ধরা পড়েছেন লিটন দাস। এর আগে স্লগ সুইপেই একটা চার মেরেছিলেন তিনি। আগের ম্যাচেও সুইপ করে জোড়া চারের পর আবারও স্লগ করতে গিয়ে আউট হয়েছিলেন লিটন, তবে সে ভুলটা আবারো করলেন তিনি। সাকিব অবশ্য এসে দ্বিতীয় বলেই কাট করে একটা চার মেরেছিলেন, পরের ওভারে ম্যাকনকিকে ছয় মেরেছিলেন নাঈম।

তবে আক্রমণাত্মক হতে গিয়ে এজাজ প্যাটেলের ঝুলিয়ে দেয়া বলে ক্রিজ ছেড়ে বেড়িয়ে এসে ভুল করেছেন সাকিব। বলে নাগাল না পেয়ে স্টাম্পড। সে ওভারে প্যাটেলকে সুইপ করতে গিয়ে মিস করে বোল্ড হয়ে সিরিজে দ্বিতীয়বার শূন্যতে ফিরেছেন মুশফিক। হুট করেই তখন বাংলাদেশের স্কোর ৩ উইকেটে ৩২।

সে চাপ সামাল দিতে আবারো দায়িত্ব নিতে হয়েছে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহকে, সঙ্গে ছিলেন নাঈম। দুজনই ঢুকে যান খোলসে, ১২তম ওভারে শুধু একটা ছয় মেরেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। ডাবলস নিতে গিয়ে রানআউট হয়ে নাঈম ফিরেছেন ১৫তম ওভারে। কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের বলে একটা সূক্ষ্ম স্টাম্পিং থেকে বেঁচে যাওয়া মাহমুদউল্লাহ শেষ পর্যন্ত আফিফ হোসেনকে নিয়ে জয় নিশ্চিত করেই ফিরেছেন। ম্যাকনকিকে মারা তার চারেই জয় নিশ্চিত হয়েছে বাংলাদেশের।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network