২৬শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

প্রতিন্দ্বন্দ্বীকে ভোট দেয়ায় দরিদ্রদের ভিজিডি কার্ড কেড়ে নিয়েছেন চেয়ারম্যান!

আপডেট: নভেম্বর ২৫, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

ভোলায় একটি ইউনিয়নে দুই শতাধিক দরিদ্র পরিবার কয়েক মাস ধরে ভিজিডির চাল পাচ্ছে না। উপকারভোগীদের কাছ থেকে কেড়ে নেয়া হয়েছে কার্ডও। অভিযোগ রয়েছে, ইউপি নির্বাচনে প্রতিন্দ্বন্দ্বীকে ভোট দেয়ায় নতুন চেয়ারম্যানের রোষানলে পড়েছেন তারা। গত নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে হারিয়ে বিজয়ী হন দলের বিদ্রোহী প্রার্থী। উপকারভোগীদের তালিকা পরিবর্তনসহ ভিজিডির চাল নিয়ে নানা অভিযোগ উঠেছে ইউনিয়নটিতে।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতায় ভিজিডি কার্ডের মাধ্যমে দরিদ্র নারীদের প্রতি মাসে দেয়া হয় ৩০ কেজি করে চাল। উপকারভোগীরা দুই বছর ধরে এই সহায়তা পান। এই কার্যক্রমের আওতায় ভোলার মনপুরা উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নে ২০২১ ও ২২ সালের জন্য ৮০৮টি পরিবারকে তালিকাভুক্ত করা হয়। মে মাস পর্যন্ত চাল পেলেও নতুন চেয়ারম্যান দায়িত্ব নেয়ার পর গত কয়েক মাস ধরে দুই শতাধিক পরিবার এই সহায়তা পাচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে হারিয়ে বিজয়ী হন দলের বিদ্রোহী প্রার্থী নিজাম উদ্দিন। বঞ্চিতদের অভিযোগ শুধুমাত্র নৌকায় ভোট দেয়ার কারণেই তাদের চাল দেয়া হচ্ছে না। জোর করে ভিজিডি কার্ড রেখে দেয়ার অভিযোগও করেন অনেকে।

কয়েকজন ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কার্ড ফেরত নিয়ে দেখতে পান ইউপি সচিবের স্বাক্ষরে তাদের চাল বিতরণ করা হয়েছে। অথচ সেই চাল কে পেয়েছে তা জানেন না প্রকৃত কার্ডধারীরা। উপকারভোগীদের তালিকা বদলে ফেলার অভিযোগও করছেন তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাজিরহাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন ও সচিব ইয়াজ উদ্দিন, কেউই দিতে পারেনি সদুত্তর।

তবে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামিম মিয়া।
Source :jamuna.tv

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network