২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

নোয়াখালীতে নবম শ্রেণির ছাত্রের হাতে একসঙ্গে ৩ টিকা

আপডেট: জানুয়ারি ১৩, ২০২২

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

নিউজ ডেস্ক ঃ
নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নবম শ্রেণির এক ছাত্রকে একসঙ্গে করোনার তিন ডোজ ফাইজার টিকা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনা নিয়ে চাটখিল উপজেলায় বেশ চাঞ্চল্যের চলছে। ভুক্তভোগী মো. ইয়াছিন হোসেন (১৪) উপজেলার ৭নং হাটপুকুরিয়া ঘাটলাবাগ ইউনিয়নের হাটপুকুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র। সে একই ইউনিয়নের ২ নাম্বার ওয়ার্ডের ইব্রাহীম খলিলের ছেলে। বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১ টার দিকে চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৫ নাম্বার কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।
ভুক্তভোগীর দাদা আবুল কালাম বলেন, ‘তিন ডোজ টিকা দেওয়ার পর থেকে তার নাতির গলা ব্যাথা ও শরীরে জ্বর দেখা দিয়েছে। এ নিয়ে পরিবারের স্বজনরা শঙ্কায় রয়েছে। বর্তমানে সে চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি।
এ প্রসঙ্গে হাটপুকুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মো. হানিফ বলেন, ‘বুধবার (১২ জানুয়ারি) সকালে চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাটপুকুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থীকে ফাইজার টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার জন্য পাঠানো হয়। এক পর্যায়ে ইয়াছিনের বাহুতে পরপর তিন ডোজ টিকা দেয় টিকাদান কর্মী দিদার হোসেন। স্কুলে এসে তিন ডোজ টিকা দেওয়ার বিষয়টি আমাকে জানায়। আমি বিষয়টি তাৎক্ষণিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তাদের অবহিত করি।
চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোস্তাক আহমেদ বলেন, ‘এ ঘটনার অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং অভিযুক্ত টিকাদান কর্মীকে শো-কজ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘তিনটি নয় ভুলবশত ২ ডোজ টিকা ওই শিক্ষার্থীকে দেওয়া হয়। বর্তমানে ওই শিক্ষার্থীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network