১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

শিরোনাম
সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের সাভানা পার্ক পরিদর্শনে দুদক প্রতিনিধি দল, সাংবাদিকদের বাঁধা পার্ক কর্তৃপক্ষের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র না তবুও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা-হিল-গালিব সাভারের ট্রাক চাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশী যুবক ওমর ফারুক জয়ের স্বর্ণ জয় এ অঞ্চল সবসময় দুর্যোগ প্রবন, তাই আপনাদের পাশে দাড়িয়েছি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তেলবাহী লড়ি উল্টে গিয়ে আগুন লেগে এক জনের মৃত্যু। ভূমি বিষয়ক তথ্যাদি স্কুলের পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ করো হয়েছে-ভূমিমন্ত্রী মির্জা ফকরুলরা তারেক জিয়ার নির্দেশে জনগনের সাথে প্রতারনা ও তামশা করছে-আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিগ বার্ড ইন কেইজ: ২৫ শে মার্চ রাতে বঙ্গবন্ধুর গ্রেফতার 

চরফ্যাশন-মনপুরার নৌকার সবুজ সংকেত পেয়েছেন আবু শাকের মোহাম্মদ তানিন

আপডেট: জানুয়ারি ২১, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দেশরত্ন শেখ হাসিনা ভোলা-৪ আসন চরফ্যাশন ও মনপুরা উপজেলা থেকে নৌকার সবুজ সংকেত দিয়েছেন সাবেক ছাত্রনেতা আবু শাকের মোহাম্মদ তানিনকে।

আবু শাকের মোহাম্মদ তানিন,এলএলবি (অনার্স) সাবেক নির্বাহী সদস্য- বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, সাবেক সহ- সম্পাদক , সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সদস্য, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সদস্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ কমিটি।
আবু শাকের তানিনের বাবা আব্দুস সালাম খান,বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং দলের দূঃসময়ে চরফ্যাশন পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন দীর্ঘ ১২ (১৯৯৫-২০০৭)বছর। তার বড় চাচা বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. রফিকুল ইসলাম সাবেক দপ্তর সম্পাদক-বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ,চরফ্যাশন উপজেলা শাখা এবং সাবেক কমান্ডর চরফ্যাশন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। চরফ্যাশন উপজেলার অনেক স্কুল,কলেজ,মাদ্রাসা,মসজিদ প্রতিষ্ঠার সাথে আবু শাকের মোহাম্মদ তানিনের পরিবার জড়িত।
আবু শাকের মোহাম্মদ তানিন বলেন…
স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে চরফ্যাশন উপজেলায় একমাত্র আমাদের বাড়িটিই পাক-হানাদার বাহিনী ও রাজাকার বাহিনী দ্বারা আক্রমন ও জ্বালাও-পোড়াও এর স্বীকার হয়েছিলো, কারন অত্র অঞ্চলে আমাদের বাড়িটিই ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের একমাত্র সমন্বয় কেন্দ্র। একাদশ জাতীয় নির্বাচনে আমি ভোলা-৪ চরফ্যাশন ও মনপুরা উপজেলা থেকে জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করি। এবং পরবর্তীতে মাননীয় নেত্রী ভোলা-৪ আসনের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য মনোনীত করেছেন। আমি নৌকার বিজয়ের লক্ষে জনসংযোগ করি বিভিন্ন ইউনিয়নে। আমি মনে করি ব্যাক্তির পরিবর্তন হবে,ব্যাক্তি চলে যাবে, ব্যাক্তি আসবে, জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক নৌকার পরিবর্তন হবে না।
দলের দূঃসময়ে মাননীয় নেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপার প্রতিটি নির্দেশ রাজপথে সক্রিয় ভাবে পালন করেছি, আমার শরীরের তাজা রক্ত দিয়েছি এই রাজপথে,আমি মনে করি দলের সাথে আমার সম্পর্কটা রক্তের।
মাননীয় নেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপা আমাকে চরফ্যাশন ও মনপুরা উপজেলার সর্বস্তরের তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের নিয়ে কাজ করতে বলেছেন। আমি মাননীয় নেত্রীকে বলেছি চরফ্যাশন ও মনপুরা উপজেলার তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের আমি একনায়কতন্ত্র থেকে মুক্তি দিব এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শিক রাজনৈতিক ধারায় ফিরিয়ে আনবো ইনশাআল্লাহ।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network