১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

শিরোনাম
সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নামে দূর্নীতির অভিযোগ উঠায় দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে-গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধানের শ্রদ্ধা গোপালগঞ্জে আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল-আ.লীগ নেতৃবৃন্দ টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে তিন সচিবের শ্রদ্ধা আশুলিয়ায় নারী পোশাক শ্রমিককে শ্বাসরোধ করে হত্যা, গ্রেপ্তার ১ । হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি নদীপাড়ে আতঙ্ক বিরাজ সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের সাভানা পার্ক পরিদর্শনে দুদক প্রতিনিধি দল, সাংবাদিকদের বাঁধা পার্ক কর্তৃপক্ষের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র না তবুও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা-হিল-গালিব সাভারের ট্রাক চাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ইলিশ রক্ষায় তেতুলিয়া নদীতে গলাচিপা উপজেলা প্রশাসনের অভিযানে ০২ জেলের কারাদণ্ড

আপডেট: অক্টোবর ২৩, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
মা ইলিশ রক্ষায় পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় তেতুলিয়া নদীর বিভিন্ন স্থানে গতকাল রবিবার রাতভর অভিযান চালিয়ে ০৯ জেলেকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ০২ জেলেকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। অভিযানে নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহিউদ্দিন আল হেলাল ।
উপজেলা মৎস দপ্তরের সূত্রে জানা যায়, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সিনিয়র মৎস কর্মকর্তা স্পিডবোট নিয়ে গতকাল রাতে নদীতে অভিযানে নামেন। তাঁরা রাতভর অভিযান চালিয়ে চরকাজল ও চরবিশ্বাস ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানের নদীতে অভিযান চালিয়ে ০২টি মাছ শিকারের ইঞ্জিনচালিত নৌকা জব্দ করা হয়। এসব নৌকা থেকে ০৯ জেলেকে আটক করা হয়। তাঁদের মধ্যে ০২ জেলেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও ০১ জনকে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ০৬ কিশোরকে। এসময় প্রায় ৭০ কেজি মাছ জব্দ করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিতরণ করা হয়। এছাড়া প্রায় ০২ লক্ষ টাকার জাল জব্দ করে বিনষ্ট করা হয়।

ইউএনও গলাচিপা বলেন, মা ইলিশ রক্ষা করার জন্য তাঁরা চেষ্টা করে যাচ্ছেন। অভিযানও অব্যাহত রেখেছেন। মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানের মধ্যে জেলেরা যাতে নদীতে না নামেন, এ জন্য ১৫৫০০ জেলেকে খাদ্যসহায়তা হিসেবে ২৫ কেজি করে চাল দেওয়া হয়েছে।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, এখন ইলিশের প্রজনন মৌসুম চলছে। এ সময় মা ইলিশ ডিম পাড়ার জন্য সমুদ্র থেকে মিঠা পানিতে আসে। ইলিশের প্রজনন নির্বিঘ্ন করতে ১২ অক্টোবর থেকে ০২ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিন ইলিশ ধরা, পরিবহন, বিপণন ও মজুত নিষিদ্ধ করেছে সরকার। নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বিভিন্ন স্থানে মা ইলিশ শিকার করছেন কিছু জেলে। উপজেলা প্রশাসন, মৎস্য বিভাগ, পুলিশ, কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর সমন্বয়ে নদীতে অভিযান অব্যাহত আছে।
উপজেলা সিনিয়র মৎস কর্মকর্তা জনাব মো. জহিরুন্নবী বলেন, এখন ইলিশ ডিম দিচ্ছে। ধৈর্য ধারণ করে সংরক্ষণ করলে ইলিশের উৎপাদন বাড়বে কয়েক গুণ। এ সময় ইলিশ ধরা থেকে বিরত থাকার জন্য জেলেদের অনুরোধ করেছেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network