১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

হিজলা প্রেসক্লাবে ভাংচুর ও লুটপাটের প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি।

আপডেট: অক্টোবর ২৫, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

হিজলা প্রতিনিধিঃ

বরিশালের হিজলায় মৎস্য কর্মকর্তার নির্দেশে তার পালিত লাঠিয়াল বাহিনীর হামলা, ভাঙচুর,ও লুটপাটের প্রতিবাদে হিজলায় কর্মরত ইলেকট্রিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সকল সাংবাদিক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।
এ সময় সাংবাদিক নেতা মাই টিভি,যুগান্তর প্রতিনিধি ও হিজলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ দেলোয়ার হোসেন,দৈনিক যায়যায় দিন প্রতিনিধি ও সাধারন সম্পাদক হিজলা প্রেসক্লাব সুমনুর রহমান সোহাগ সহ নুর নবী,সুমন তালুকদার,সাইফুল ইসলাম,মিলন,মামুন,কাজির হাট থানার মানবাধিকার কর্মী রুবিনা ইয়াসমিন অন্তরা ও সাংবাদিক তারেক সহ অনেকে। এ সময় ভক্তারা মৎস্য ও প্রশাসনের সকল দপ্তর কে উদ্দেশ্য করে বলেন হিজলার সাংবাদিকরা কোন প্রকার অনিয়ম দুর্নীতির সাথে আপস করে না,আগেও করেনি ভবিষ্যতেও করবে না। সকল সাংবাদিকদের দাবি দুর্নীতিবাজ মৎস্য কর্মকর্তার দ্রুত অপসারণ।

গত ২২ অক্টোবর হিজলা মৎস্য দপ্তর ও নৌ পুলিশ অভিযান চালিয়ে মৎস্য ব্যবসায়ীদের ইলিশ সহ বিভিন্ন প্রজাতির দুইশত মন মাছ জব্দ করে। জব্দকৃত মাছ বেলা একটার দিকে নৌ পুলিশ ফাঁড়ির সামনে আনা হয়। কিছু মাছ বিভিন্ন এতিমখানা ও অসহায় দুস্থদের মাঝে বিতরণ করে। জব্দকৃত মাছের মধ্যে শতাধিক পাঙ্গাসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ছিল। ওই মাছগুলো মৎস্য কর্মকর্তা তার পালিত লাঠিয়াল বাহিনীনদী পাহারাদার বারেক মোল্লা, কাজী হানিফ, আরিফ সহ বাহিনীর একাধিক সদস্য দ্বারা নিয়ে যাওয়ার সময় জনগণের রোশানলে পরে। এ সময় সাংবাদিকরা তার চিত্র তুলতে গেলে সাংবাদিকদের ক্যামেরা ও আসবাবপত্র ভাঙচুর সহ হিজলা প্রেসক্লাবে ঢুকে তাণ্ডব চালায় মৎস্য কর্মকর্তা এম এম পারভেজ’র নেতৃত্বে। এই সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে সকল সাংবাদিক ছুটে আসে প্রেসক্লাবে তখন মৎস্য কর্মকর্তা এম এম পারভেজের লাঠিয়াল বাহিনীর সকল সদস্যরা দৌড়ে পালিয়ে যায়।
এ ঘটনার জেরে হিজলা প্রেসক্লাবের উদ্দ্যোগে এম এম পারভেজ সহ ৫জন ও ১০/১৫ জনকে অজ্ঞাত করে হিজলা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায় হিজলায় কর্মরত সাংবাদিকরা দীর্ঘদিন ধরেই মৎস্য অফিসের দুর্নীতি ও চাঁদাবাজি সহ নানা অনিয়মের সংবাদ প্রকাশ হওয়ার কারণেই মৎস্য কর্মকর্তা এম এম পারভেজ সাংবাদিকদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে এ ধরনের জঘন্যতম কাজে লিপ্ত হয়েছে।
বিগত সময়েও এ কর্মকর্তা অনেক সাংবাদিক কে সংবাদ না করতে ম্যানেজের ব্যার্থ চেষ্টা চালিয়ে আসছিলেন।

আর এ সকল দুর্নীতি ও অনিয়মকে ধামাচাপা দিতেই সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে হিজলা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছে মৎস্য কর্মকর্তা এম এম পারভেজ।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network