১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

হিজলায় ছাত্রদল সভাপতি কর্তৃক স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের শিকার,ভাঙ্গা থানায় গ্রেফতার।

আপডেট: অক্টোবর ২৭, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

হিজলা প্রতিনিধি।। বরিশালের হিজলা উপজেলার হরিনাথপুর বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে গুয়াবাড়িয়া ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি কালিকাপুর গ্রামের নয়ন সরদারের ছেলে সানাউল্লাহ।
দীর্ঘদিন মেয়েটিকে রাস্তায় দাঁড়িয়ে উত্তপ্ত করে আসছিল সানাউল্লাহ। বিয়ের প্রস্তাব দিলে অশ্বিকৃতি জানালে তাকে বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি দেখায়।

ভুক্তভোগী মেয়েটি পরিবারকে জানানোর পর সানাউল্লাহর পরিবারকে বিষয়টি অবিহিত করলে সানাউল্লার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টো ভুক্তভোগীর পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি সহ না না ভয় ভীতি দেখানো হয়।

উপায়ান্তর না পেয়ে অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়েটি অসুস্থতার ভান ধরে প্রায় একমাত্র স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়।

স্কুলে যাওয়া বন্ধ করেও শেষ রক্ষা পেল না বখাটে ওই ছাত্রদল নেতার হাত থেকে।

২২ অক্টোবর রাত আনুমানিক দশটায় সানাউল্লাহ ঘরে প্রবেশ করে মেয়েটির মাকে মারধর করে মেয়েটিকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এক পর্যায়ে মেয়েটিকে একটি গাছের সাথে বেঁধে ধর্ষণ করে।

ধর্ষণকারী যাওয়ার সময় মেয়েটিকে হুমকি দিয়ে বলে কাউকে জানালে পরিবারের সবাইকে মেরে ফেলা হবে।
পরে অসুস্থ অবস্থায় মেয়েটিকে পরিবারের লোকজন উদ্ধার করে। এ ঘটনার পর থেকেই আত্মগোপনে যায় সানাউল্লাহ।

বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় নুরুল ইসলাম, ফারুক সহ কয়েকজনে মিউচুয়াল করার চেষ্টা চালায় তাতেও কোন লাভ হয়নি।

মেয়ের বাবা কান্নায় ভেঙে পড়ে বলে আমার মেয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে ও তার ইজ্জতকে রক্ষা করতে পারিনি আমি এর সর্বোচ্চ বিচারের দাবি জানাই।
ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়ারুল ইসলাম জানায় বেলা বারোটার দিকে মামলায় অভিযুক্ত সানাউল্লাহকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

হিজলা থানার অফিসার ইনচার্জ জুবায়ের ধর্ষণকারীর গ্রেপ্তারের সত্যতা স্বীকার করে বলেন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network