১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

সন্ত্রাসী, ভুমিদস্যু ও আর্ন্তজাতিক কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী রোকুনুজ্জামান, আলাউদ্দিনসহ তাদের সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক কঠোর শাস্তির দাবিতে দিনাজপুরে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

আপডেট: নভেম্বর ৫, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

রফিকুল ইসলাম ফুলাল দিনাজপুর প্রতিনিধি:
সন্ত্রাসী, ভুমিদস্যু ও আর্ন্তজাতিক কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী এবং একাধিক মামলার আসামি মোঃ রোকুনুজ্জামান এবং সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ আলাউদ্দিনসহ তাদের সন্ত্রাসী ক্যাডারদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক কঠোর শাস্তির দাবিতে দিনাজপুরে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে স্থানীয় ভুক্তভোগীরা ।

৫ নভেম্বর রবিবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে উল্লেখিত অভিযোগে সংবাদ সংবাদ সম্মেলন করে দিনাজপুর সদর উপজেলার ৯ নং আস্করপুর ইউপি’র জামালপুর শেখপাড়া গ্রামের মোতালেব হোসেন চৌধুরীর কন্যা এবং সন্ত্রাসী হামলার শিকার মো: রনি আলমের স্ত্রী ইনারা ফারিয়া চৌধুরী । এসময় লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সরকার বিরোধী আন্দোলনের বিএনপি’র কর্মী এবং এলাকার ত্রাসসৃষ্টিকারী সন্ত্রাসী রোকনুজ্জামান ও তার মামা মো: আলাউদ্দিন বাহিনীর হামলা, নির্মম নির্যাতন ও নিষ্ঠুরতার কাছে আমরা ভুমি হারিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছি।

সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধনে মাদক ব্যবসায় ও সন্ত্রাসী ভুমিদস্যু মো: রোকুনুজ্জামানের নিষ্ঠুর হামলার শিকার রনি আলমের স্ত্রী ইনারা ফারিয়া চৌধুরী বলেন, শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ও কুখ্যাত সন্ত্রাসী রোকুনুজ্জামান একাধিক মাদক মামলার আসামি এবং সরকার বিরোধী আন্দোলনের একনিষ্ঠ কর্মী ও বিএনপি নেতা । ৯নং আস্করপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক মেম্বার তার মামা মোঃ আলাউদ্দিনের ইন্দনে সে এলাকায় মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে । সন্ত্রাসীদের গডফাদার মামা আলাউদ্দীন ও ভাগিনা রোকুনুজ্জানের নিষ্ঠুর নির্যাতন ও অত্যাচারের ভয়ে এলাকাবাসী তটস্থ । তাদের কোনো ধরনের অন্যায়ের প্রতিবাদ করার সাহস স্থানীয় কারো নেই। রোকুনুজ্জামান অন্যের সম্পদ জোর করে দখলে রেখে আমার স্বামী রনি আলমকে মেরে হাত পা ভেঙে দেয়াসহ মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্ষত বিক্ষত করেছে। আমার স্বামীকে নৃশংসভাবে মারায় রোকুনুজ্জামানসহ ৬জনের বিরুদ্ধে দিনাজপুর কোতোয়ালি থানায় গত ২৮অক্টোবর একটি মামলা হয়, যাহার মামলা নাম্বার ৬৩ তাং ২৮/১০/২৩ইং।

মামলা থেকে জামিনে আসার পর সে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে। রোকুনুজ্জামান ও সন্ত্রাসী বাহিনীর ভয়ে আমরা বর্তমানে জীবনের নিরাপত্তা হীনতায় জীবন যাপন করছি। কে এই রোকুনুজ্জামান ও তার মামা আলাউদ্দিন । তাদের ক্ষমতার উৎস কোথায় ? প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসা একের পর এক সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ,অন্যের জমি জোবরদখলসহ নানাবিধ অপকর্ম করেও এলাকায় বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে । রাতে বসছে দখলকৃত জায়গায় রমরমা মাদকের আসর। রোকুনুজ্জামান আমার স্বামীকে মেরে ঘুড়ছে বুক ফুলিয়ে আর আমার স্বামী রনি আলমকে কাতরাতে হচ্ছে হাসপাতালের বেডে। যারা আমার স্বামীকে অন্যায়ভাবে নৃশংসভাবে মেরেছে আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। সেই সাথে আলাউদ্দিনের মত ভদ্র শয়তানের মুখোশ উন্মোচন করতে চাই যে সমাজের ভালো মানুষ সেজে সমাজের প্রতিনিধি হয়ে অপরাধিদেরকে ইন্দন জুগিয়ে অপরাধ কর্মকান্ড করার প্রবনতা সৃষ্টি করে। তার সাহচার্যেই তার ভাগিনা রোকুনুজ্জামান এতটা বেপরোয়া এতটা উশৃঙ্খল হয়েছে। মামা আলাউদ্দীন ও ভাগিনা রোকুনুজ্জামানের অপরাধ জগত পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের গঙ্গারামপুর জনৈক্য কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী আমানের বাড়ি পর্যন্ত বিস্তৃত। প্রতিমাসেই আলাউদ্দীন ভারতের গঙ্গারামপুর আমান এর বাড়িতে যাতায়াত করে বাংলাদেশ-ভারত আর্ন্তজাতিক মাদক সিন্ডিকেটের লেনদেন চালিয়ে আসছে। আমি তার বিরুদ্ধেও দেশের প্রচলিত আইনে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন ও কঠোর শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি ।

কোতয়ালী থানায় দায়েরকৃত মামলা সুত্রে জানা যায়, গত ২৬অক্টোবর বিকেলে রোকুনুজ্জামান ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে ৯নং আস্করপুর ইউনিয়নের জামালপুর শেখপাড়ায় জোরপূর্বক অন্যের জায়গায় অনধিকার প্রবেশ করে জোরপূর্বক ৭০ শতক জমি জোবরদখলে নেয় এবং তাতে নির্মান কাজ শুরু করে। ঘটনার সংবাদ জানতে পেরে ইনারা ফারিহার স্বামী রনি আলম ও একই ইউনিয়নের নালাহার গ্রামের মোঃ মাজেদুর রহমানের ছেলে জমির মালিক মোঃ দুলাল নির্মান কাজে বাধা দিলে রোকুনুজ্জামান ও তার বাহিনী তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় এবং গুরতর আহত করে। পরে সেখান থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় রনি আলমকে উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । সেখানে চিকিৎসা চলাকালীন শারিরিক অবস্থার অবনতি হলে রনি আলমকে জিয়া হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্ত্তি করা হয়েছে । যাদের নির্মম অত্যাচারের কারনে আজ রনি আলম হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছে সেই শীর্ষ সন্ত্রাসী ও মাদক সম্রাট রোকুনুজ্জামান ও তার মদদদাতা মামা আলাউদ্দিনকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান রনি আলমের স্ত্রী ইনারা ফারিহা চৌধুরীসহ স্থানীয়রা । সংবাদ সম্মেলনের পরে একই দাবীতো স্থানীয় ভুক্তভোগীরা প্রেসক্লাবের সন্মুখ সড়কে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করেছে।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিবি ফাতেমা, ফেরদাউস,সুফিয়া খাতুন,শাবানা,মো: রেজওয়ান ইসলাম জিকো,মো: দুলাল হোসেন,মো: মোতালেব হোসেন চৌ: ও মো: লোকমান হোসেন প্রমুখ।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network