১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

শিরোনাম
হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি নদীপাড়ে আতঙ্ক বিরাজ সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের সাভানা পার্ক পরিদর্শনে দুদক প্রতিনিধি দল, সাংবাদিকদের বাঁধা পার্ক কর্তৃপক্ষের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র না তবুও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা-হিল-গালিব সাভারের ট্রাক চাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশী যুবক ওমর ফারুক জয়ের স্বর্ণ জয় এ অঞ্চল সবসময় দুর্যোগ প্রবন, তাই আপনাদের পাশে দাড়িয়েছি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তেলবাহী লড়ি উল্টে গিয়ে আগুন লেগে এক জনের মৃত্যু। ভূমি বিষয়ক তথ্যাদি স্কুলের পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ করো হয়েছে-ভূমিমন্ত্রী মির্জা ফকরুলরা তারেক জিয়ার নির্দেশে জনগনের সাথে প্রতারনা ও তামশা করছে-আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক

সিঙ্গেল দিবসে রাবিয়ানদের ভাবনা

আপডেট: নভেম্বর ১১, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, রাবি:
খুনসুটি, দুষ্টু-মিষ্টি আলাপন, হাতে-হাত রেখে অজানা গন্তব্যে হারিয়ে যাওয়া কিংবা মাঝরাতে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে অভিমানে মুখ লুকানো কাপল সমাজের নিত্য ঘটনা। তাদের প্রশান্তি এখানেই। কিন্তু পৃথিবীতে আরেক প্রজাতির প্রাণি আছে যাদের কাছে এগুলো টক-আঙ্গুর ফল কিংবা ঘুণেখাওয়া কাঠের মতো নিজেকে ভিতর থেকে শেষ করার নামান্তর বলে মেনে থাকে। প্রাণিটি ব্যাচেলর বা সিঙ্গেল নামে ভদ্র সমাজে পরিচিত। আজ বিশ্ব ব্যাচেলর বা সিঙ্গেল দিবসে রাবিয়ান সিঙ্গেল সমাজের মতামত জানবো।

তোমাকে তখন মনে পড়ে যখন মশারী টানানোর আলসেমিতে ৩বার ডেঙ্গু জ্বরে হাসপাতালে ভর্তি হই

সালাহউদ্দিন আম্মার: আমি ব্যাচেলর, তোমাকে আমার তখন মনে পড়ে যখন বাসা ভাড়া নিতে গেলে দারোয়ান জিজ্ঞাসা করে-” মামা ব্যাচেলর?” আমার তখন তোমাকে মনে পড়ে যখন খাওয়ার পর থালা বাসন মাজতে হয়, আমার তোমাকে তখন মনে পড়ে যখন মশারী টানানোর আলসেমিতে ৩বার ডেঙ্গু জ্বরে হাসপাতালে ভর্তি হই। বিশ্বাস করো জীবনের শুধুমাত্র এই ট্রাজেডিতেই তোমার মতো ভয়াবহ ট্রাজেডির কথা আমার মনে পড়ে। তা না হইলে আমারে কি পাগলে পাইছে যে আমি খাল কেটে কুমির আনবো?

আমি যে সিঙ্গেল থাকতে থাকতে সন্ন্যাসী হয়ে যাবো এটা আমি বুঝতে পারিনি;

তানজিমুল হক বাবু: আজ সিঙ্গেল দিবস। আমিও একা। কারণ আমি প্রেমের জন্য প্রার্থনা করি না। আমি সিঙ্গেল কারণ আমি ভালোবাসা নিয়ে খেলি না। সিঙ্গেল জীবন মানুষের জন্য সুখের জীবন । তাই সিঙ্গেল জীবন নিয়ে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের ইচ্ছা আকাঙ্ক্ষা থাকে। সিঙ্গেল জীবনে কোন ধরনের চাহিদা নেই, কোন ধরনের প্যারা নেই , কোন ধরনের কারো অধীনস্থ নই, তাই আমি সিঙ্গেল জীবন নিয়ে অনেক সুখের জীবন কাটাই বলে আমি মনে করি। সিঙ্গেল জীবনে বন্ধু-বান্ধবদের সাথে কাটানো সেই আনন্দ মুহূর্ত সময়টুকু আমার অনেক ভালো লাগে।

আসলে একাকিত্ব অনুভব করাটা সত্যি অনেক কঠিন তবে আজ সিঙ্গেল দিবসে সত্যি আমি একাকিত্ব অনুভব করতেছি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ইবলিশের পুকুর পাড়ে যখন দেখি যে কাপলরা সুন্দর মুহূর্ত পার করছে এটা দেখলে নিজের মধ্যে একটু খারাপ লাগে। আবার কখনো কখনো দেখা যায় যে বয়ফ্রেন্ড গার্লফ্রেন্ডরা মারামারি করছে ও ইবলিসের পুকুর পাড়ে আসলে এইটা দেখার পরে মনে হয় যে প্রেম না করেই ভালো আছি। আমি যে সিঙ্গেল থাকতে থাকতে সন্ন্যাসী হয়ে যাবো এটা আমি বুঝতে পারিনি।

মানুষ সিঙ্গেল থাকা মানেই সে পুরোপুরি স্বাধীন;

তারিক মনোয়ার : সিঙ্গেল মানেই সুখ আর সিঙ্গেল মানেই সমৃদ্ধি। কারণ আমাদের সমাজে সিঙ্গেল মানুষ খুজে পাওয়া দুষ্কর। আর কেউ চাইলেও সিঙ্গেল হতে পারে না। বিষয়টি যতটা সহজভাবে ধরা হয়, ততটাই কঠিন। মানুষ সিঙ্গেল থাকা মানেই সে পুরোপুরি স্বাধীন, আর মিঙ্গেল থাকা মানেই তার উপরে অন্য কারোর প্রভাব।এজন্যই মানসিক প্রশান্তি ও চাপমুক্ত থাকার অন্যতম মাধ্যম হলো সিঙ্গেল থাকা।

শাড়ির কুঁচি ঠিক করে দেওয়ার জন্য হলেও তোমাকে চাই;

সানজিদা ইসলাম সানিয়া: আমি যে ব্যাচেলার এই কথাটা কখনো সেভাবে মনে হয়না। কিন্তু যখন শাড়ি পরে বিশ্ববিদ্যালয় যাই আর শাড়ির কুঁচি ঠিক করে দেওয়ার মানুষ থাকে নাহ। ঠিক তখনি মনে হয় তুমি থাকলে এতো চিন্তা করতে হতো নাহ। আবার যখন রাত দশটাই কিছু খেতে ইচ্ছে করে তখন মনে হয় ব্যাচেলার থাকা কষ্ট কারণ তুমি থাকলে নিশ্চয় সব খেয়াল রাখতে। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে ব্যাচেলার থাকার আরেকটা কষ্ট হলো হুট-হাট ট্যুার দিতে ইচ্ছে করবে যেহেতু পরিবারের কেউ এখানে নাই তাই কোন ভালো বন্ধু থাকলে সহজে ঘুরতে যাওয়া যায় কিন্তু আপনি সিঙ্গেল থাকলে এরকম ট্যুর ও দিতে পারবেন নাহ। মিঙ্গেলদের দেখে শুধু আফসোস করবেন।

তবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের চলাচলে মাঝে মধ্যেই অপ্রীতিকর দৃশ্যের সম্মুখীন হতে হয় ;

রেদওয়ান ইসলাম: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কিছু দিন ধরে খেয়াল করছি ক্যাম্পাসে শীতকালে আমতলা গুলোতে আর রাতে আড্ডা জমে না। ফাঁকা নিলিবিলি থাকে ক্যাম্পাস। এই সুযোগে অবাধে চলছে প্রেম এবং সংসারের গল্প। তবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের চলাচলে মাঝে মধ্যেই অপ্রীতিকর দৃশ্যের সম্মুখীন হতে হয় যা আমাদের বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলে। আমরা এসব বিবাহ বহির্ভূত অবৈধ সম্পর্কের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আর আজকের এই দিনে সিঙ্গেল থাকা প্রত্যক ছেলে ও মেয়েকে রাবি শাখা সিঙ্গেল সংগ্রাম পরিষদ, ৬৯ তম ব্যাচের পক্ষ থেকে উষ্ণ অভিনন্দন ও শুভকামনা।

পুরুষ মানুষ দু’প্রকার: জীবিত, বিবাহিত’;

রাহাজুল আমিন: পৃথিবীতে নানান রুচির মানুষ থাকায় চারপাশে নানান ধরনের ঘটনা আমাদের চোখে পড়ে ৷১৪-ই ফেব্রুয়ারী যেমন বিশাল আয়োজনের মাধ্যমে পালিত হয় ভ্যালেন্টাইনস ডে। তেমনি আছে তার বিপরীতও৷ আজ ১১ নভেম্বর, দিনটিকে ‘ব্যাচেলর দিবস’ বা ‘সিঙ্গেল দিবস’ হিসাবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে পালিত হয়৷ বিবাহিত বা অবিবাহিত যুগলদের কাছে জীবন একভাবে উপভোগ্য,সেখানে সুখ-দুঃখ,ভালোবাসা-বন্ধুত্ব সবকিছুর পরেও আছে জবাবদিহিতা, দুজনের রুচিবোধকে পাত্তা দেওয়া, নিয়ম করে ফোনে কথা বলা অথবা টেক্সট করা, নির্দিষ্ট সময়ে ঘরে ফেরা এধরনের ব্যাপারগুলো আছেই৷ এধরনের শৃঙ্খল থেকে মুক্ত হয়ে মুক্ত ও স্বাধীনচেতা কিছু মানুষ আনন্দ খুঁজে নেয় একাকিত্বের মাঝে৷তাঁরা কারো সঙ্গ আশা করেনা, নিজের মতো করেই জীবনকে সাঁজিয়ে নেয়৷তাঁরা চায়না তাঁদের স্বাধীন জীবনে কেউ এসে উপনিবেশ তৈরি করুক৷তাইতো এধরনের প্রেমবিমুখ-বিবাহবিমুখ মানুষেরা নচিকেতার সুরে সুর মিলিয়ে বলতে চায়,’বিবাহিত মানে প্রকারন্তরে মৃত, পুরুষ মানুষ দু’প্রকার: জীবিত, বিবাহিত’।

ভাবিয়া করিও প্রেম, করিয়া ভাবিও না;

আব্দুল গাফ্ফার: আমরা যারা সিঙ্গেল আছি, আমরা যখন একা হয়ে যায়, সাধারণত তখন আমাদের মনে নানা রকম নেতিবাচক চিন্তা এসে ভিড় করে। আর এই নেতিবাচক চিন্তা যেমনি মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।একাকীত্ব আমাদেরকে ভুল পথে নিয়ে যায় অনেক সময়ই। একাকীত্ব কাটিয়ে ওঠার কোনো উপায় খুঁজে না পেয়ে আমরা হয়তো বাছবিচারহীনভাবে যে কারো সঙ্গে বন্ধুত্ব-প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলি এবং আরও হতাশ হয়ে পড়ি। তাই সবার জন্য একটাই বার্তা ভাবিয়া করিও প্রেম, করিয়া ভাবিও না।

তবে হ্যাঁ কাপল দেখে হিংসা আমার হয়না;

তারিফুল ইসলাম: আজ সিঙ্গেল দিবস। আমি এক অবলা সিঙ্গেল। কারণ আমি এখনো পারিনি তাঁর মনে জায়গায় করে নিতে। তাকে না পারলাম বলতে নিঃশ্বাসে-বিশ্বাসে জমে থাকা মনের কথাগুলো। যদি সে হারিয়ে যায় সে ভয়ে। তবে আজ মনে হচ্ছে সিঙ্গেল দিবসটা শুধুই আমার। তবে হ্যাঁ কাপল দেখে হিংসা আমার হয়না। কারণ আমার মনের দিক থেকে সে তো আছেই। সেই আমাকে কাপল হতে শক্তি যোগায়, মনের দিক থেকে। হয়তো তাকে পাওয়া আর খুব বেশি দেরি নয় । সব শেষে বলব, আমার মতো হাজারো সিঙ্গেলদের প্রতি মন থেকে ভালোবাসা। দিনটা শুভ হোক প্রতিটি সিঙ্গেল ছেলে-মেয়ের।

উল্লেখ্য যে, আজ ১১ নভেম্বর, ‘ব্যাচেলর দিবস’। দিনটি ‘সিঙ্গেল দিবস’ হিসেবে অধিক পরিচিতি পেলেও আদতে এটি ‘ব্যাচেলর দিবস’ নামেই শুরু হয়েছিল। ১৯৯০ সালে চীনের নানজিং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে এটি চালু হয়। নভেম্বর ইংরেজি বর্ষের ১১তম মাস। ফলে সব মিলিয়ে এতে আছে চারটি এক: ১১-১১। প্রতিটি এক আসলে একক ব্যক্তির প্রতিনিধিস্বরূপ। অর্থাৎ পাশাপাশি থেকেও যে একা থাকা যায়, ১১ নভেম্বর যেন তা-ই বোঝাচ্ছে। ব্যাচেলররা কিন্তু আজকের দিনটি পালন করতে পারেন। যুগলেরা পালন করুক প্রেম বা বিয়েবার্ষিকী কিংবা চকলেট, গোলাপ, প্রস্তাব, প্রতিশ্রুতি, চুমু কিংবা আলিঙ্গন দিবস। বিপরীতে ব্যাচেলর বন্ধুরা সব মিলে আজকে হোক জম্পেশ ব্যাচেলর পার্টি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network