২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

নির্বাচন না হলে শূন্যতা সৃষ্টি হবে, শূন্যতার দায়ভার নির্বাচন কমিশন নিবে না-নির্বাচন কমিশনার মো: আলমগীর

আপডেট: নভেম্বর ২৬, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার, গোপালগঞ্জ : বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন কমিশনার মো: আলমগীর বলেছেন, একটি সংসদের মেয়াদ ৫ বছর। আগামী ২৯ জানুয়ারী এ সংসদের মেয়াদ শেষ হবে। তাই নির্বাচন না করার কোন সুযোগ নেই, নির্বাচন করতেই হবে। কারণ নির্বাচন না করা হলে তখন সরকার কে থাকবে। নির্বাচন না হলে শূন্যতা সৃষ্টি হবে, শূন্যতার দায়ভার নির্বাচন কমিশন নিবে না, জাতিও নিতে পারে না, সরকারও নিতে পারে না। তাই ৭ জানুয়ারী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এতে কোন সন্দেহ নেই।

আজ রবিবার (২৬ নভেম্বর) বিকালে গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসকের কায্যালয়ে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত জেলার নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

নির্বাচন কমিশনার আরো বলেন, মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে বিএনপি যদি এসে বলে আমরা নির্বাচন করবো আমাদের প্রস্তুতি কম বা প্রস্তুতি নেই। আমাদের জন্য নির্বাচনের সিডিউল যতটুকু পেছানো সম্ভব ততটুকু পেছান, সে ক্ষেত্রে আমরা কনসিডার করবো। আমাদের মাননিয় প্রধান কমিশনার অলরেডি বলেছেন, আমরা মনে করি সেক্ষেত্রে কমিশনার বিবেচনা করবে।

নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হবে এমন জোড় দিয়ে নির্বাচন কমিশনার অরো বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করার জন্য আমাদের যা যা করা দরকার সবই করা হবে। একই সাথে আইন শৃঙ্খলা রক্ষা ও দেখভাল করার জন্য যারা আছেন ,বা নিবার্চন পরিচালনা করার জন্য যারা দ্বায়িতে থাকবেন সবার চেষ্টা থাকবে একটি শান্ত পূর্ণ নির্বাচন। আমাদের পক্ষ থেকে নির্বাচন সুষ্ঠ ও শান্তি পূর্ণ করার জন্য যত রকম প্রচেষ্টা নেওয়া বা গ্রহন করার দরকার তার সব গুলোই নিয়েছি। আমরা আশা করি একটি সুষ্ট নির্বাচন হবে।

নির্বাচন কমিশনার মো: আলমগীর আরো বলেছেন, নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে মাঠে নামানোর কোন সিদ্ধান্ত হয়নি, তবে অতীতের যেহেতু সকল জাতিয় নির্বাচনে সেনাবাহীনি ছিলো, এবারো সেনাবাহিনীর মাঠে থাকার সম্ভবানা রয়েছে।

জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার কাজী মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় সরকারী কর্মকর্তাসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। তবে সেখানে গনমাধ্যম কর্মিদের প্রবেশে নিষেধ ছিলো।

এরআগে, টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান নির্বাচন কমিশনার মো: আলমগীর। পরে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদে রুহের মাগফেরাত কামনা করেন ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে নির্বাচন কমিশনার মো: আলমগীর বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধের প্রশাসনিক ভবনে রক্ষিত পরিদর্শন বইতে মন্তব্য লিখে স্বাক্ষর করেন।

এসময় গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক কাজী মাহবুবুল আলম, পুলিশ সুপার আল-বেলী আফিফা, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আল-মামুন, গোপালগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফয়জুল মোল্লা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) খাইরুল আলম, টুঙ্গিপাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) জহিরুল আলম, ওসি খন্দকার আমিনুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। #

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network