১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

শিরোনাম
হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি নদীপাড়ে আতঙ্ক বিরাজ সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের সাভানা পার্ক পরিদর্শনে দুদক প্রতিনিধি দল, সাংবাদিকদের বাঁধা পার্ক কর্তৃপক্ষের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র না তবুও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা-হিল-গালিব সাভারের ট্রাক চাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশী যুবক ওমর ফারুক জয়ের স্বর্ণ জয় এ অঞ্চল সবসময় দুর্যোগ প্রবন, তাই আপনাদের পাশে দাড়িয়েছি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তেলবাহী লড়ি উল্টে গিয়ে আগুন লেগে এক জনের মৃত্যু। ভূমি বিষয়ক তথ্যাদি স্কুলের পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ করো হয়েছে-ভূমিমন্ত্রী মির্জা ফকরুলরা তারেক জিয়ার নির্দেশে জনগনের সাথে প্রতারনা ও তামশা করছে-আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক

গোপালগঞ্জে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী নৌকা বাইচ

আপডেট: অক্টোবর ২৯, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার, গোপালগঞ্জ : শ্রী শ্রী লক্ষ্মীপূজা উপলক্ষে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার বাঘিয়ার বিলে তিন দিনব্যাপী দক্ষিণাঞ্চলের সর্ববৃহৎ আড়াইশ বছরের ঐতিহ্যবাহি নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতা শুরু হয়েছে।

আজ রবিবার (২৯ অক্টোবর) দুপুর থেকেই বাইচে অংশ নিতে গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, খুলনা, বাগেরহাট, বরিশাল, পিরোজপুরসহ বিভিন্ন জেলার প্রত্যান্ত এলাকা থেকে শতাধিক বাহারি নৌকার আগমন ঘটে। এ বাইচে বাছাড়ি, জয়নাগরি, কোষা, টালী ও ছান্দী নৌকা অংশ নেয়। বৈঠার সলাৎ সলাৎ শব্দে কাসির বাদ্যের তালে তালে জারি, সারি গান গেয়ে নেচে নেচ অংশ নেন মাল্লারা। বিকাল থেকে সন্ধ্যা পযর্ন্ত কালিগঞ্জ বাজারের বড় খাল থেকে বুরুয়া বড় ব্রীজ দীর্ঘ প্রায় পাঁচ কিলোমিটার জুড়ে চলে একের পর এক কুচ।

এ নৌকাবাইচ দেখতে দুপুর থেকে খালের দুই পারো জড়ো হতে থাকে বিভিন্ন বয়সের মানুষ। গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, খুলনা, বাগেরহাট, বরিশাল, পিরোজপুরসহ বিভিন্ন এলাকার লাখো মানুষ খালের পাড়ে জড়ো হয়ে উপভোগ করেন নৌকাবাইচ। তবে নৌকায় নৌকায় আর ট্রলারে করে নৌকাবাইচ উপভোগ করার দৃশ্য ছিল চোখে পড়ার মত।

নৌকা বাইচের একটি বিশেষ আকর্ষণ হচ্ছে এখানে কোন পুরস্কারের ব্যবস্থা না থাকলেও প্রকৃতির নিয়মে নৌকার কোন কমতি থাকে না। এ বাইচ চলবে তিন দিন পর্যন্ত।

এ নৌকাবাইচকে কেন্দ্র করে খালের দুই পাড়ে বসে মেলা। বাহারি সব দোকানপাট নিয়ে বসেছে বিক্রেতারা। এ মেলায় মিষ্টি, খেলনা, মনোহরির, কাঁসা-পিতল, নাগরদোলাসহ বসে বিভিন্ন খাবারের দোকান।

নৌকাবাইচ দেখেতে আসা কোটালীপাড়া উপজেলার মাছপাড়া গ্রামের মিলন অধিকারী বলেন, আমাদের এলাকায় নৌকাবাইচ প্রায় আড়াইশ বছরের বেশি দিন ধরে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও খুব লেকজন হয়েছে। বিকাল থেকেই নৌকার কুইজ প্রতিযোগীতা শুরু হয়। নৌকা বাইচ দেখে অনেক আনন্দ উপভোগ করেছি।

মাদারীপুর জেলার কদমবাড়ী থেকে নৌক বাইচ দেখতে আসা বিষ্ণু রায় বলেন, এ বছর দোকানপাট, লোকজন ও নৌকা বেশি হয়েছে। আমারা পবিবারসহ নৌকা বাইচ দেখতে আসছি। খুব মজা হয়েছে। সারা বিকেলটা অনেক আনন্দে কেটেছে আমাদের।

কলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড: বিজন বিশ্বাস বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী এলাকা, এই এলাকায় বর্ষা মৌসুমে বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন সময়ে নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয় থাকে। তবে দক্ষিণ বাংলার সব থেকে বড় নৌকাবাইচ অনুষ্ঠিত হয় বাঘিয়ার বিলে। আজ থেকে তিন দিনব্যাপী চলবে এ নৌকা বাইচ। যুগ যুগ ধরে চলে আসছে এই নৌকা বাইচ। প্রচুর লোকের সমাগম ঘটে। যার কারণে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে। এই নৌকা বাইচ সুন্দর ও সার্থকভাবে পালিত হয় এই কামনা করি। #

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
     
Website Design and Developed By Engineer BD Network