৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

নবজাতককে পুকুরে ছুড়ে হত্যা, মা আটক

আপডেট: অক্টোবর ১৩, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মাদারীপুরের কালকিনি পৌর এলাকার দক্ষিণ ঠেঙ্গামাড়া গ্রামের একটি পুকুর থেকে জামিলা নামের ১৪ দিনের এক নবজাতক কন্যা শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে পুলিশের দাবি শিশুর মা ময়না আক্তার শিশুটিকে পানিতে ফেলে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। এই ঘটনায় ঘাতক মা ময়না আক্তারকে রবিবার সন্ধ্যায় আটক করেছে থানা পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, দক্ষিণ ঠেঙ্গামাড়া গ্রামের সত্তার সরদারের ছেলে সুজন সরদার দীর্ঘদিন যাবত বিদেশ থাকেন। এ নিয়ে তাদের সংসারে স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে বিরোধ চলে আসছে। এরজের ধরে তার স্ত্রী ময়না আক্তার দুপুরে তার নবজাতক জামিলাকে পরিবারের সকল সদস্যদের চোখ ফাঁকি দিয়ে ঘরের পাশের পুকুরে ফেলে দেন। পরে পরিবারের লোকজন বিকেলে ওই নবজাতকের লাশ দেখতে পান।
এলাকাবাসী ঘটনাটি পুলিশকে জানায়। খবর পেয়ে কালকিনি থানা পুলিশ ওই শিশুটির মা-বাবাসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। একপর্যায়ে মা ময়না তার শিশুটিকে পুকুরে ফেলে দিয়েছেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেন। এ ঘটনায় পুলিশ ওই ঘাতক মা ময়না আক্তারকে আটক করেন।

শিশুটির বাবা সুজন সরদার কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘আমরার সংসারে কোনো অভাব নাই। আমার বউ কেন যে এই ঘটনা ঘডাইলো যানি না। এ ঘটনা এখন আইনে যা হয় আমি হেইডাতেই রাজি আছি।’

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, ‘নবজাতককে পুকুরের পানিতে ফেলে দেওয়ার কথা শিশুটির মা ময়না স্বীকার করেছেন। তাকে আটক করা হয়েছে। তবে কেন হত্যা করেছেন, সে বিষয়ে তিনি মুখ খুলছেন না। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
   
Website Design and Developed By Engineer BD Network